ঢাকা ০৩:৫৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বার্ষিক বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, কৃষি, শিক্ষা, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক মেলা অনুষ্ঠিত

খ্রীষ্টফার জয়
  • আপডেট সময় : ০৩:১৬:১০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৬ মার্চ ২০২৪ ২১ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক:


মুক্তিদাতা স্কুলে আন্তঃ ক্লাস বিজ্ঞান-প্রযুক্তি-কৃষি-ভূগোল ও শিল্পসংস্কৃতি মেলা এবং বার্ষিক শিক্ষা, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ২০২৪খ্রী:

মুক্তিদাতা হাই স্কুল, বাগানপাড়া, রাজশাহী এর আয়োজনে গত ১২ মার্চ থেকে ১৪ মার্চ তিন দিন ব্যাপি আনন্দে উৎসাহে ও ভাবগাম্ভির্য সহকারে আন্তঃ ক্লাস বিজ্ঞান-প্রযুক্তি-কৃষি-ভূগোল ও শিল্পসংস্কৃতি মেলা এবং শিক্ষা, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ২০২৪ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত তিন দিন অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে অতি আনন্দঘন ও উৎসব মুখর পরিবেশ মুক্তিদাতা স্কুল অতিবাহিত করে।

প্রথম দিন বিজ্ঞান মেলার শুভ উদ্বোধন ও প্রধান অতিথির হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী ধর্মপ্রদেশের ভিকার জেনারেল এবং মুক্তিদাতা হাই স্কুলের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ফাদার ফাবিয়ান মারান্ডী । বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী সরকারী বি.এড. কলেজের অধ্যক্ষ (অবসরপ্রাপ্ত) মো: আব্দুল সামাদ মন্ডল এবং অনুষ্ঠানের আহ্বায়ক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মুক্তিদাতা হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক ব্রাদার রঞ্জন পিউরিফিকেশন সিএসসি।

 

অনুষ্ঠানের প্রথমেই অতিথিদের আদিবাসী নৃত্যের মাধ্যমে মঞ্চে নিয়ে আসন গ্রহণ করানোর পর তিন ধর্মের আলোকে বিশেষ প্রার্থনা, জাতীয় পতাকা উত্তোলনসহ জাতীয় সংগীত, শান্তির প্রতীক পায়রা উড়ানো, জ্ঞানের প্রতীক প্রদীপ প্রজ¦লন, উদ্বোধনী নৃত্য, ব্যাজ, ফুলের তোড়া ও উত্তোরিয় প্রদানের মাধ্যমে অতিথিদের বরণ করে নেওয়া হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, কেবল মাত্র বইযের জ্ঞানই মানুষকে জ্ঞানী করে না, বিজ্ঞান চর্চার মাধ্যমে আমাদের শিক্ষার্থীরা বিজ্ঞান মনস্ক হয়ে উঠবে এবং বিজ্ঞান মনষ্ক হলে তাদের মধ্য থেকে কুপমন্ডুতা বা কুসংস্কার বা অন্ধবিশ্বাস থাকবে না। বর্তমান বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে অবশ্যই আমাদের বিজ্ঞান মনস্ক শিক্ষার্থী উঠতে হবে। গবেষণা-ধর্মী পড়ালেখাই আমাদের সামনের দিকে নিয়ে যেতে পারবে। মুক্তিদাতা স্কুল চমৎকার একটি পদক্ষেপ নিয়েছে যার মাধ্যমে তোমাদের মধ্যে বিজ্ঞান চেতনার উদয় হবে। বিশেষ অতিথি ও সভাপতি মহোদয়ও তাদের বক্তব্যে শিক্ষার্থীদের উৎসাহ প্রদান করেন। অতঃপর অতিথিদের সম্মাননা স্মারক ও উপহার প্রদান করা হয়।

আলোচনা শেষে অতিথিবৃন্দ ফিতা কেটে বিজ্ঞান মেলার শুভ উদ্বোধন ও ৪৩টি প্রজেক্ট পরিদর্শন করেন । যেখানে প্রায় ১০০ জন শিক্ষার্থী তাদের প্রজেক্ট উপস্থাপন করে।

১৩ মার্চ বুধবার দুইদিন ব্যাপি বার্ষিক শিক্ষা, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার শুভ উদ্বোধন ও প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী এ.সি.ও এবং ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ সিনিয়র ম্যানেজার মি. স্বপন মন্ডল। অনুষ্ঠানের প্রথমেই অতিথিদের আদিবাসী নৃত্যের মাধ্যমে মঞ্চে নিয়ে আসন গ্রহণ করানোর পর সার্বজনীন প্রার্থনা, জাতীয় পতাকা উত্তোলনসহ জাতীয় সংগীত, জ্ঞানের প্রতীক প্রদীপ প্রজ¦লন, উদ্বোধনী নৃত্য, ব্যাজ, ফুলের তোড়া ও উত্তোরিয় প্রদানের মাধ্যমে অতিথিদের বরণ করে নেওয়া হয়।

পরে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি বলেন, দেশ, জাতি, সমাজ, পরিবার ইত্যাদির পরিচয় বহন করে সংস্কৃতি। যাদের সংস্কৃতি যত বেশী সমৃদ্ধ তারা তত উন্নত। তাই আমাদের প্রত্যেকের সংস্কৃতিতে সমৃদ্ধ হওয়া উচিত। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে তিনি ধন্যবাদ দিয়ে বলেন, এই ধরনের উদ্যোগ অনেক প্রশংসার দাবিদার। এর মাধ্যমে অধিকাংশ শিক্ষার্থী সংস্কৃত মনা হয়ে উঠবে। তাদের সুপ্ত প্রতিভা গুলো জাগ্রত হবে। পরে অতিথিদের সম্মাননা স্মারক ও উপহার প্রদান করা হয়।

এই প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীবৃন্দ সতস্ফূর্ত ভাবে আবৃত্তি, গান, অ্যাকশন সং, নৃত্য, উপস্থিত বক্তব্য, একক অভিনয়, ধারাবাহিক গল্প বলা, দেশাত্ববোধক গান, দলিয় নৃত্যের মতো বিষয় গুলো উপস্থাপন করে তাদের প্রতিভার বিকাশ করে।

১৪ মার্চ বৃহষ্পতিবার বার্ষিক বিজ্ঞান মেলা এবং শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ২০২৪ এর সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান হয়। যেখানে সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় নার্সারী থেকে দশম শ্রেণী পর্যন্ত ৯৯ জন শিক্ষার্থকে বিভিন্ন পুরস্কার প্রদানের মাধ্যমে তিন দিনের কর্মসূচি সমাপ্ত করা হয়।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

বার্ষিক বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, কৃষি, শিক্ষা, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক মেলা অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ০৩:১৬:১০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৬ মার্চ ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক:


মুক্তিদাতা স্কুলে আন্তঃ ক্লাস বিজ্ঞান-প্রযুক্তি-কৃষি-ভূগোল ও শিল্পসংস্কৃতি মেলা এবং বার্ষিক শিক্ষা, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ২০২৪খ্রী:

মুক্তিদাতা হাই স্কুল, বাগানপাড়া, রাজশাহী এর আয়োজনে গত ১২ মার্চ থেকে ১৪ মার্চ তিন দিন ব্যাপি আনন্দে উৎসাহে ও ভাবগাম্ভির্য সহকারে আন্তঃ ক্লাস বিজ্ঞান-প্রযুক্তি-কৃষি-ভূগোল ও শিল্পসংস্কৃতি মেলা এবং শিক্ষা, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ২০২৪ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত তিন দিন অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে অতি আনন্দঘন ও উৎসব মুখর পরিবেশ মুক্তিদাতা স্কুল অতিবাহিত করে।

প্রথম দিন বিজ্ঞান মেলার শুভ উদ্বোধন ও প্রধান অতিথির হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী ধর্মপ্রদেশের ভিকার জেনারেল এবং মুক্তিদাতা হাই স্কুলের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ফাদার ফাবিয়ান মারান্ডী । বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী সরকারী বি.এড. কলেজের অধ্যক্ষ (অবসরপ্রাপ্ত) মো: আব্দুল সামাদ মন্ডল এবং অনুষ্ঠানের আহ্বায়ক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মুক্তিদাতা হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক ব্রাদার রঞ্জন পিউরিফিকেশন সিএসসি।

 

অনুষ্ঠানের প্রথমেই অতিথিদের আদিবাসী নৃত্যের মাধ্যমে মঞ্চে নিয়ে আসন গ্রহণ করানোর পর তিন ধর্মের আলোকে বিশেষ প্রার্থনা, জাতীয় পতাকা উত্তোলনসহ জাতীয় সংগীত, শান্তির প্রতীক পায়রা উড়ানো, জ্ঞানের প্রতীক প্রদীপ প্রজ¦লন, উদ্বোধনী নৃত্য, ব্যাজ, ফুলের তোড়া ও উত্তোরিয় প্রদানের মাধ্যমে অতিথিদের বরণ করে নেওয়া হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, কেবল মাত্র বইযের জ্ঞানই মানুষকে জ্ঞানী করে না, বিজ্ঞান চর্চার মাধ্যমে আমাদের শিক্ষার্থীরা বিজ্ঞান মনস্ক হয়ে উঠবে এবং বিজ্ঞান মনষ্ক হলে তাদের মধ্য থেকে কুপমন্ডুতা বা কুসংস্কার বা অন্ধবিশ্বাস থাকবে না। বর্তমান বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে অবশ্যই আমাদের বিজ্ঞান মনস্ক শিক্ষার্থী উঠতে হবে। গবেষণা-ধর্মী পড়ালেখাই আমাদের সামনের দিকে নিয়ে যেতে পারবে। মুক্তিদাতা স্কুল চমৎকার একটি পদক্ষেপ নিয়েছে যার মাধ্যমে তোমাদের মধ্যে বিজ্ঞান চেতনার উদয় হবে। বিশেষ অতিথি ও সভাপতি মহোদয়ও তাদের বক্তব্যে শিক্ষার্থীদের উৎসাহ প্রদান করেন। অতঃপর অতিথিদের সম্মাননা স্মারক ও উপহার প্রদান করা হয়।

আলোচনা শেষে অতিথিবৃন্দ ফিতা কেটে বিজ্ঞান মেলার শুভ উদ্বোধন ও ৪৩টি প্রজেক্ট পরিদর্শন করেন । যেখানে প্রায় ১০০ জন শিক্ষার্থী তাদের প্রজেক্ট উপস্থাপন করে।

১৩ মার্চ বুধবার দুইদিন ব্যাপি বার্ষিক শিক্ষা, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার শুভ উদ্বোধন ও প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী এ.সি.ও এবং ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ সিনিয়র ম্যানেজার মি. স্বপন মন্ডল। অনুষ্ঠানের প্রথমেই অতিথিদের আদিবাসী নৃত্যের মাধ্যমে মঞ্চে নিয়ে আসন গ্রহণ করানোর পর সার্বজনীন প্রার্থনা, জাতীয় পতাকা উত্তোলনসহ জাতীয় সংগীত, জ্ঞানের প্রতীক প্রদীপ প্রজ¦লন, উদ্বোধনী নৃত্য, ব্যাজ, ফুলের তোড়া ও উত্তোরিয় প্রদানের মাধ্যমে অতিথিদের বরণ করে নেওয়া হয়।

পরে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি বলেন, দেশ, জাতি, সমাজ, পরিবার ইত্যাদির পরিচয় বহন করে সংস্কৃতি। যাদের সংস্কৃতি যত বেশী সমৃদ্ধ তারা তত উন্নত। তাই আমাদের প্রত্যেকের সংস্কৃতিতে সমৃদ্ধ হওয়া উচিত। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে তিনি ধন্যবাদ দিয়ে বলেন, এই ধরনের উদ্যোগ অনেক প্রশংসার দাবিদার। এর মাধ্যমে অধিকাংশ শিক্ষার্থী সংস্কৃত মনা হয়ে উঠবে। তাদের সুপ্ত প্রতিভা গুলো জাগ্রত হবে। পরে অতিথিদের সম্মাননা স্মারক ও উপহার প্রদান করা হয়।

এই প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীবৃন্দ সতস্ফূর্ত ভাবে আবৃত্তি, গান, অ্যাকশন সং, নৃত্য, উপস্থিত বক্তব্য, একক অভিনয়, ধারাবাহিক গল্প বলা, দেশাত্ববোধক গান, দলিয় নৃত্যের মতো বিষয় গুলো উপস্থাপন করে তাদের প্রতিভার বিকাশ করে।

১৪ মার্চ বৃহষ্পতিবার বার্ষিক বিজ্ঞান মেলা এবং শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ২০২৪ এর সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান হয়। যেখানে সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় নার্সারী থেকে দশম শ্রেণী পর্যন্ত ৯৯ জন শিক্ষার্থকে বিভিন্ন পুরস্কার প্রদানের মাধ্যমে তিন দিনের কর্মসূচি সমাপ্ত করা হয়।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি