ঢাকা ০২:৫৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গোদাগাড়ীতে জেলা পরিষদের জায়গায় অবৈধভাবে দোকানঘর নির্মাণের অভিযোগ

জাহিদুল
  • আপডেট সময় : ০৫:৩৯:৩৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১১ ডিসেম্বর ২০২৩ ৩৫ বার পড়া হয়েছে

গোদাগাড়ী প্রতিনিধি :


রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় জেলা পরিষদের সরকারি জায়গায় অবৈধভাবে দোকান ঘর নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গোদাগাড়ী উপজেলা কেন্দ্রীয় মসজিদের পাশে পুকুর ভরাট করে অবৈধভাবে দোকান ঘর নির্মাণ করছে স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তি শফিকুল ইসলাম।

সোমবার (১১ ডিসেম্বর) বিকেলে সরেজমিনে দেখা যায়, গোদাগাড়ী ডাইংপাড়া থেকে থানা রোডের প্রধান যাতায়াত সড়কের রাস্তার কাছাকাছি পৌরসভার সামনে দেখা যায়, ইট, সিমেন্ট ও বালি দিয়ে ৪/৫ দিন থেকে কাজ করছে দোকানের জন্য রাজমিস্ত্রিরা।
খবর পেয়ে দুপুরে উপজেলা চেয়ায়ম্যান জাহাঙ্গীর আলম নির্মাণকাজ চলা অবস্থায় বাঁধা দিয়ে কাজ বন্ধ করেন।

গোদাগাড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম বলেন, উপজেলা পরিষদের জায়গায় আমাকে না জানিয়ে অবৈধভাবে ভবন নির্মাণ কাজ করছিলো এমন অবস্থায় আমি জানতে পেরে কাজে বাঁধা প্রদান করে কাজ বন্ধ করেছি।
চেয়ারম্যান আরও বলেন, আমি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আমাকে কোনো রকম অবগত না করে অবৈধভাবে ভবন নির্মাণ করা এ সাহস তারা পায় কোথায়, এটা অনেক বড় দুঃসাহসের ব্যাপার।

গোদাগাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আতিকুল ইসলাম জানান, এটা জেলা পরিষদের সম্পত্তি, এখানে প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া কেউ দোকানঘর করতে পারবে না। এই বিষয়ে আমার জানা নাই, আমি এই বিষয়টি তদন্ত করে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব।


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে.সি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

গোদাগাড়ীতে জেলা পরিষদের জায়গায় অবৈধভাবে দোকানঘর নির্মাণের অভিযোগ

আপডেট সময় : ০৫:৩৯:৩৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১১ ডিসেম্বর ২০২৩

গোদাগাড়ী প্রতিনিধি :


রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় জেলা পরিষদের সরকারি জায়গায় অবৈধভাবে দোকান ঘর নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গোদাগাড়ী উপজেলা কেন্দ্রীয় মসজিদের পাশে পুকুর ভরাট করে অবৈধভাবে দোকান ঘর নির্মাণ করছে স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তি শফিকুল ইসলাম।

সোমবার (১১ ডিসেম্বর) বিকেলে সরেজমিনে দেখা যায়, গোদাগাড়ী ডাইংপাড়া থেকে থানা রোডের প্রধান যাতায়াত সড়কের রাস্তার কাছাকাছি পৌরসভার সামনে দেখা যায়, ইট, সিমেন্ট ও বালি দিয়ে ৪/৫ দিন থেকে কাজ করছে দোকানের জন্য রাজমিস্ত্রিরা।
খবর পেয়ে দুপুরে উপজেলা চেয়ায়ম্যান জাহাঙ্গীর আলম নির্মাণকাজ চলা অবস্থায় বাঁধা দিয়ে কাজ বন্ধ করেন।

গোদাগাড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম বলেন, উপজেলা পরিষদের জায়গায় আমাকে না জানিয়ে অবৈধভাবে ভবন নির্মাণ কাজ করছিলো এমন অবস্থায় আমি জানতে পেরে কাজে বাঁধা প্রদান করে কাজ বন্ধ করেছি।
চেয়ারম্যান আরও বলেন, আমি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আমাকে কোনো রকম অবগত না করে অবৈধভাবে ভবন নির্মাণ করা এ সাহস তারা পায় কোথায়, এটা অনেক বড় দুঃসাহসের ব্যাপার।

গোদাগাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আতিকুল ইসলাম জানান, এটা জেলা পরিষদের সম্পত্তি, এখানে প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া কেউ দোকানঘর করতে পারবে না। এই বিষয়ে আমার জানা নাই, আমি এই বিষয়টি তদন্ত করে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব।


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে.সি