ঢাকা ০৮:০২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

খ্রীষ্টফার জয়
  • আপডেট সময় : ১২:৪২:২৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর ২০২৩ ৪৫ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগ নেতা ভাষ্কর সাহা ও কয়েকজনের বিরুদ্ধে। দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের মতিহার হলে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, হলের ক্যান্টিনে বসা নিয়ে শান্ত নামে ছাত্রলীগের এক কর্মীর সঙ্গে জাহিদের কথা কাটাকাটি হয়। খাওয়া শেষে জাহিদ হলের ১২৯ নম্বর রুমে তার বন্ধুর কাছে যায়৷ পরে শান্ত দলবল নিয়ে তাদের দরজায় ধাক্কাধাক্কি করে। পরে সেখানে কয়েকজনকে নিয়ে ভাষ্কর সাহা ওই কক্ষে ঢুকেই এলোপাতাড়ি মারধর করেন৷

জানা যায়, ভুক্তভোগী জাহিদ হাসান ও মাহফুজুর রহমান রিফাত বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন্যান্স বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র। তাদের মধ্যে জাহিদ ফাইন্যান্স বিভাগ ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। আর মতিহার হল ছাত্রলীগের উপ-গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক৷ তারা দুজনেই কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য সাকিবুল হাসান বাকির অনুসারী ছিলেন৷

অন্যদিকে অভিযুক্তরা হলেন, রাবি ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ভাষ্কর সাহা ও মতিহার হল ছাত্রলীগের কর্মী শান্ত৷ ভাষ্কর সাহার বিরুদ্ধে এর আগেও শিক্ষার্থী নির্যাতনের অভিযোগ উঠে৷ গত ২২ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫২৫ তম সিন্ডিকেট সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তাকে সতর্ক করা হয়৷ এক মাস না যেতে তার বিরুদ্ধে আবারও শিক্ষার্থী নির্যাতনের অভিযোগ উঠে৷

এ ঘটনার পর ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় মারামারি, হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে ক্যাম্পাসে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করেন অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা ভাষ্কর সাহা। তবে তার বিরুদ্ধে আবার কোনো অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলছেন প্রক্টর৷


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে.সি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

আপডেট সময় : ১২:৪২:২৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগ নেতা ভাষ্কর সাহা ও কয়েকজনের বিরুদ্ধে। দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের মতিহার হলে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, হলের ক্যান্টিনে বসা নিয়ে শান্ত নামে ছাত্রলীগের এক কর্মীর সঙ্গে জাহিদের কথা কাটাকাটি হয়। খাওয়া শেষে জাহিদ হলের ১২৯ নম্বর রুমে তার বন্ধুর কাছে যায়৷ পরে শান্ত দলবল নিয়ে তাদের দরজায় ধাক্কাধাক্কি করে। পরে সেখানে কয়েকজনকে নিয়ে ভাষ্কর সাহা ওই কক্ষে ঢুকেই এলোপাতাড়ি মারধর করেন৷

জানা যায়, ভুক্তভোগী জাহিদ হাসান ও মাহফুজুর রহমান রিফাত বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন্যান্স বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র। তাদের মধ্যে জাহিদ ফাইন্যান্স বিভাগ ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। আর মতিহার হল ছাত্রলীগের উপ-গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক৷ তারা দুজনেই কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য সাকিবুল হাসান বাকির অনুসারী ছিলেন৷

অন্যদিকে অভিযুক্তরা হলেন, রাবি ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ভাষ্কর সাহা ও মতিহার হল ছাত্রলীগের কর্মী শান্ত৷ ভাষ্কর সাহার বিরুদ্ধে এর আগেও শিক্ষার্থী নির্যাতনের অভিযোগ উঠে৷ গত ২২ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫২৫ তম সিন্ডিকেট সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তাকে সতর্ক করা হয়৷ এক মাস না যেতে তার বিরুদ্ধে আবারও শিক্ষার্থী নির্যাতনের অভিযোগ উঠে৷

এ ঘটনার পর ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় মারামারি, হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে ক্যাম্পাসে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করেন অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা ভাষ্কর সাহা। তবে তার বিরুদ্ধে আবার কোনো অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলছেন প্রক্টর৷


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে.সি