ঢাকা ০৩:২২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ১০ ননম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ আব্বাস আলীর প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে ভোট করাই হলো কাল দোকান মালিক মোহাম্মদ টিটুর ও পাশের ৮টি দোকানীর

হাই কোর্টের নিষেধাজ্ঞাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে মার্কেট ভেঙ্গে ফেললেন রাসিক ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া 

খ্রীষ্টফার জয়
  • আপডেট সময় : ০৬:০০:০৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০২৪ ২৭ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব  প্রতিবেদক:


রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ১০ ননম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ আব্বাস আলীর প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে ভোট করাই হলো কাল দোকান মালিক মোহাম্মদ টিটুর ও পাশের ৮টি দোকানীর।

কাউন্সিলর আব্বাস নিজের প্রভাব জাহির করতে সিটি কর্পোরেশনকে ম্যানেজ করে দোকান ভাঙ্গার মহাযজ্ঞ লীলা শুক্রবার ছুটির দিনে মেতেছে রাসিক মেজিস্ট্রেট সাদিয়া আফরিনের।

মার্কেটটির কর্মচারী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন স্থাবর সম্পত্তিটি থেকে ২ফিট জায়গা পাবে। অথচ, বিনা নোটিশে শুক্রবার (২৬ এপ্রিল) দুপুর ২টায় রাসিকের ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া আফরিনের উপস্থিতিতে সম্পূর্ণ স্থাপনাটি গুড়িয়ে দেওয়া হয়।

স্থানীয়রা ও দোকানীরা বলছে গত সোমবার সিটি করপোরেশন গেলে তারা হাইকোর্টে ডিমান্ড অফ জাস্টিস কাগজ জমা নিতে চাই না। পরে জমা নিলে তারা বলে আমরা পরের দিন গিয়ে মাপজোক করে আসবো। কিন্তু তারা সেগুলো না করে হুট করেই আজকে ছুটির দিনে এসে বিনা নোটিশে আমাদের মার্কেট ভেঙ্গে ফেলে। আমরা কোথায় যাবো আমাদের প্রায় ১০টা পরিবার এই মার্কেট থেকে চলতো। আজ আমরা নিষ্য।

বিষয়টি নিয়ে আরেক দোকানি বলে পূর্ব শত্রুতার জেরে সিটি করপোরেশন কে সাথে নিয়ে বর্তমান কাউন্সিলর মো: আব্বাস আলী এই কাজ করাচ্ছে।

ঘটনা সময় সেই জায়গায় কিছু গণমাধ্যমকর্মী ভিডিও ও তথ্য নিতে গেলে ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া আরিফিন তাদের ভিডিও ধারণ বাধাপ্রদান করেন ও কাউন্সিলরকে বলেন যেন সেই সাংবাদিকদের বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হয়।

বিস্তারিত জানতে এবং এর সত্যতা যাচাই করতে কাউন্সিলর আব্বাস আলীকে বলেন, জায়গাটি সিটি করপোরেশনের। তারা নকল দলীল তৈরি করে জায়গা দখল করে রেখেছে। আমার সাথে টনির কোনো শক্রতা নেই৷

বিগত দিন গুলোতে সিটি করপোরেশনের এই কার্যক্রম গুলো গণমাধ্যমকর্মীরা তুলে ধরে। তবে, এবারে রাসিকের এই উচ্ছেদ অভিযানের সংবাদ সংগ্রহে গেলে গণমাধ্যম কর্মীদের বাধা প্রদান করেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া আফরিন ও ১০নং ওর্য়াড কাউন্সিলর আব্বাস আলী সরদার৷

রাসিকের এই উচ্ছেদ অভিযানের বিষয়ে জানতে চাইলে, কাঁচ ঢাকা গাড়ীর অভ্যন্তরে অবস্থান করে গনমাধ্যমকর্মীদের এড়িয়ে যান ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া আফরিন।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ১০ ননম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ আব্বাস আলীর প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে ভোট করাই হলো কাল দোকান মালিক মোহাম্মদ টিটুর ও পাশের ৮টি দোকানীর

হাই কোর্টের নিষেধাজ্ঞাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে মার্কেট ভেঙ্গে ফেললেন রাসিক ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া 

আপডেট সময় : ০৬:০০:০৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০২৪

নিজস্ব  প্রতিবেদক:


রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ১০ ননম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ আব্বাস আলীর প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে ভোট করাই হলো কাল দোকান মালিক মোহাম্মদ টিটুর ও পাশের ৮টি দোকানীর।

কাউন্সিলর আব্বাস নিজের প্রভাব জাহির করতে সিটি কর্পোরেশনকে ম্যানেজ করে দোকান ভাঙ্গার মহাযজ্ঞ লীলা শুক্রবার ছুটির দিনে মেতেছে রাসিক মেজিস্ট্রেট সাদিয়া আফরিনের।

মার্কেটটির কর্মচারী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন স্থাবর সম্পত্তিটি থেকে ২ফিট জায়গা পাবে। অথচ, বিনা নোটিশে শুক্রবার (২৬ এপ্রিল) দুপুর ২টায় রাসিকের ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া আফরিনের উপস্থিতিতে সম্পূর্ণ স্থাপনাটি গুড়িয়ে দেওয়া হয়।

স্থানীয়রা ও দোকানীরা বলছে গত সোমবার সিটি করপোরেশন গেলে তারা হাইকোর্টে ডিমান্ড অফ জাস্টিস কাগজ জমা নিতে চাই না। পরে জমা নিলে তারা বলে আমরা পরের দিন গিয়ে মাপজোক করে আসবো। কিন্তু তারা সেগুলো না করে হুট করেই আজকে ছুটির দিনে এসে বিনা নোটিশে আমাদের মার্কেট ভেঙ্গে ফেলে। আমরা কোথায় যাবো আমাদের প্রায় ১০টা পরিবার এই মার্কেট থেকে চলতো। আজ আমরা নিষ্য।

বিষয়টি নিয়ে আরেক দোকানি বলে পূর্ব শত্রুতার জেরে সিটি করপোরেশন কে সাথে নিয়ে বর্তমান কাউন্সিলর মো: আব্বাস আলী এই কাজ করাচ্ছে।

ঘটনা সময় সেই জায়গায় কিছু গণমাধ্যমকর্মী ভিডিও ও তথ্য নিতে গেলে ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া আরিফিন তাদের ভিডিও ধারণ বাধাপ্রদান করেন ও কাউন্সিলরকে বলেন যেন সেই সাংবাদিকদের বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হয়।

বিস্তারিত জানতে এবং এর সত্যতা যাচাই করতে কাউন্সিলর আব্বাস আলীকে বলেন, জায়গাটি সিটি করপোরেশনের। তারা নকল দলীল তৈরি করে জায়গা দখল করে রেখেছে। আমার সাথে টনির কোনো শক্রতা নেই৷

বিগত দিন গুলোতে সিটি করপোরেশনের এই কার্যক্রম গুলো গণমাধ্যমকর্মীরা তুলে ধরে। তবে, এবারে রাসিকের এই উচ্ছেদ অভিযানের সংবাদ সংগ্রহে গেলে গণমাধ্যম কর্মীদের বাধা প্রদান করেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া আফরিন ও ১০নং ওর্য়াড কাউন্সিলর আব্বাস আলী সরদার৷

রাসিকের এই উচ্ছেদ অভিযানের বিষয়ে জানতে চাইলে, কাঁচ ঢাকা গাড়ীর অভ্যন্তরে অবস্থান করে গনমাধ্যমকর্মীদের এড়িয়ে যান ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া আফরিন।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি