ঢাকা ০৭:৩৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মমতা নার্সিং ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীদের উপর মারধর ও লাচ্ছিত করার ঘটনা ঘটেছে

খ্রীষ্টফার জয়
  • আপডেট সময় : ০৫:৪৫:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৭ মার্চ ২০২৪ ৬২ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক:


মমতা নার্সিং ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীদের উপর মারধর ও লাচ্ছিত করার ঘটনা ঘটেছে

আজ বৃহস্পতিবার (৭মার্চ) নগরীর দেবীসিং পাড়া মমতা নার্সিং ইনস্টিটিউটের নারী শিক্ষার্থীবৃন্দ প্রতিষ্ঠানের এক পাশে বিকেল ৪টার দিকে আন্দোলন করে।

নার্সিং সমাজকে নিয়ে নোংরা মন্তব্য ব্যক্তি চরিত্র হনন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বিরোধী বানোয়াট মিথ্যাচারী এসপি আব্দুর রহিম শাহ ও তার পরিবার দ্বারা শিক্ষার্থীদের লাঞ্ছিত, হটকারি দখলদারিত্ব নানা অনৈতিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদে তারা এই অবস্থান কর্মসূচি করেছে।
তবে সেই সময় তাদের উপর অতর্কিত ভাবে মামুন নামের একজন এসে তাদের উপর চড়া হন এবং কয়েকজন শিক্ষার্থীকে লাঞ্চিত করে বলে অভিযোগ করেছে ।

শিক্ষার্থীরা বলছে, বিগত দুই মাস প্রতিষ্ঠান তালাবদ্ধ থাকাই নার্সিং শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত হয় এমন অবস্থায় ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা উপায় না পেয়ে প্রতিষ্ঠানের সামনে অবস্থান কর্মসূচি শান্তিপূর্ণভাবে পালন করে ইতিমধ্যে এসপি আব্দুর রহিম নির্দেশে তার ভাগ্নি জামাই দাবিদার মামুন শিক্ষার্থীদের ওপর অতর্কিত হামলা চালাই এবং নারী শিক্ষার্থীর গায়ে হাত এবং লাঞ্ছিত করে।

একই সাথে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মনিরুজ্জামান বাবুলের শার্টের কলার চেপে ধরে ও অকথ্য ভাষায় শিক্ষার্থীসহ প্রতিষ্ঠানের সবাইকে গালিগালাজ করে।
মামুন আরো বলেন প্রতিষ্ঠানের প্রধান মনিরুজ্জামান বাবুলের চোখ তুলে নিবেন। এতে পরিস্থিতি আরো খারাপ হয় এমন অবস্থায় শিক্ষার্থীরা 999 নাইনে ফোন দিলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করে কিন্তু এসপি আব্দুর রহিম শাহ চৌধুরী তার পরিচয় দিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী পুলিশকে বলে উনার সাথে বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসির কথা হয়েছে ।
পরে এ অবস্থায় পুলিশের সামনে এসপি আব্দুর রহিম শাহ চৌধুরীর ভাগ্নি জামাই মামুন শিক্ষার্থীদের মারধর ও লাঞ্চিত করে । এই বিষয় নিয়ে তারা কোনো পদক্ষেপ নেয়া নি এমনকি শিক্ষার্থীদের সাথেও তারা এই বিষয় নিয়ে কথা বলেনি।
বিষয়টি নিয়ে বিষয়টি নিয়ে শিক্ষার্থীদের থানায় অভিযোগ করার কথা বললে তারা এসপি আব্দুর রহিম শাহ চৌধুরীর ভয়ে লাঞ্ছিতোর ঘটনায় থানায় কোন অভিযোগ করতে পারিনি ।

পরবর্তীতে বিষয়টি নিয়ে বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসি হুমায়ন কবিরের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি এই ঘটনার কিছুই জানি না । তবে আমি যেটুকু জানি সেখানে এখন এসপি এসেছেন ও ঢাকা থেকে সচিব এসেছেন । তাদের নিরাপত্তার জন্য আমি সেখানে পুলিশ পাঠিয়েছি। কিন্তু এমন ঘটনা ঘটেছে সেখানে সেই বিষয়ে আমি জানি না । যদি কেউ থানায় অভিযোগ করে তবে আমরা বিষয়টি নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নিবো ।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

মমতা নার্সিং ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীদের উপর মারধর ও লাচ্ছিত করার ঘটনা ঘটেছে

আপডেট সময় : ০৫:৪৫:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৭ মার্চ ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক:


মমতা নার্সিং ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীদের উপর মারধর ও লাচ্ছিত করার ঘটনা ঘটেছে

আজ বৃহস্পতিবার (৭মার্চ) নগরীর দেবীসিং পাড়া মমতা নার্সিং ইনস্টিটিউটের নারী শিক্ষার্থীবৃন্দ প্রতিষ্ঠানের এক পাশে বিকেল ৪টার দিকে আন্দোলন করে।

নার্সিং সমাজকে নিয়ে নোংরা মন্তব্য ব্যক্তি চরিত্র হনন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বিরোধী বানোয়াট মিথ্যাচারী এসপি আব্দুর রহিম শাহ ও তার পরিবার দ্বারা শিক্ষার্থীদের লাঞ্ছিত, হটকারি দখলদারিত্ব নানা অনৈতিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদে তারা এই অবস্থান কর্মসূচি করেছে।
তবে সেই সময় তাদের উপর অতর্কিত ভাবে মামুন নামের একজন এসে তাদের উপর চড়া হন এবং কয়েকজন শিক্ষার্থীকে লাঞ্চিত করে বলে অভিযোগ করেছে ।

শিক্ষার্থীরা বলছে, বিগত দুই মাস প্রতিষ্ঠান তালাবদ্ধ থাকাই নার্সিং শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত হয় এমন অবস্থায় ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা উপায় না পেয়ে প্রতিষ্ঠানের সামনে অবস্থান কর্মসূচি শান্তিপূর্ণভাবে পালন করে ইতিমধ্যে এসপি আব্দুর রহিম নির্দেশে তার ভাগ্নি জামাই দাবিদার মামুন শিক্ষার্থীদের ওপর অতর্কিত হামলা চালাই এবং নারী শিক্ষার্থীর গায়ে হাত এবং লাঞ্ছিত করে।

একই সাথে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মনিরুজ্জামান বাবুলের শার্টের কলার চেপে ধরে ও অকথ্য ভাষায় শিক্ষার্থীসহ প্রতিষ্ঠানের সবাইকে গালিগালাজ করে।
মামুন আরো বলেন প্রতিষ্ঠানের প্রধান মনিরুজ্জামান বাবুলের চোখ তুলে নিবেন। এতে পরিস্থিতি আরো খারাপ হয় এমন অবস্থায় শিক্ষার্থীরা 999 নাইনে ফোন দিলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করে কিন্তু এসপি আব্দুর রহিম শাহ চৌধুরী তার পরিচয় দিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী পুলিশকে বলে উনার সাথে বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসির কথা হয়েছে ।
পরে এ অবস্থায় পুলিশের সামনে এসপি আব্দুর রহিম শাহ চৌধুরীর ভাগ্নি জামাই মামুন শিক্ষার্থীদের মারধর ও লাঞ্চিত করে । এই বিষয় নিয়ে তারা কোনো পদক্ষেপ নেয়া নি এমনকি শিক্ষার্থীদের সাথেও তারা এই বিষয় নিয়ে কথা বলেনি।
বিষয়টি নিয়ে বিষয়টি নিয়ে শিক্ষার্থীদের থানায় অভিযোগ করার কথা বললে তারা এসপি আব্দুর রহিম শাহ চৌধুরীর ভয়ে লাঞ্ছিতোর ঘটনায় থানায় কোন অভিযোগ করতে পারিনি ।

পরবর্তীতে বিষয়টি নিয়ে বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসি হুমায়ন কবিরের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি এই ঘটনার কিছুই জানি না । তবে আমি যেটুকু জানি সেখানে এখন এসপি এসেছেন ও ঢাকা থেকে সচিব এসেছেন । তাদের নিরাপত্তার জন্য আমি সেখানে পুলিশ পাঠিয়েছি। কিন্তু এমন ঘটনা ঘটেছে সেখানে সেই বিষয়ে আমি জানি না । যদি কেউ থানায় অভিযোগ করে তবে আমরা বিষয়টি নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নিবো ।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি