ঢাকা ০৭:৩০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজশাহী-১ আসনে নৌকার বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থী আ’লীগের রাব্বানী ও মাহি

সারোয়ার হোসেন
  • আপডেট সময় : ০৪:০৫:১৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০২৩ ৯১ বার পড়া হয়েছে

তানোর প্রতিনিধি:


রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ভোটের মাঠে লড়ছেন তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি গোলাম রাব্বানী ও চিত্র নায়িকা মাহিয়া মাহি। মাহিয়া মাহি ট্রাক প্রতীক ও গোলাম রাব্বানী কাঁচি প্রতীক নিয়ে লড়ছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, সোমবার (১৮ ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ শুরু হয়। রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহিয়া মাহির কাছে জানতে চান তার পছন্দের কোন প্রতীক আছে কি না। এ সময় মাহি জানান, তার পছন্দের প্রতীক ট্রাক। অন্য কোন স্বতন্ত্র প্রার্থী ট্রাক প্রতীক না চাওয়ায় রিটার্নিং কর্মকর্তা প্রতীকটি মাহিয়া মাহিকেই বরাদ্দ দেন। প্রতীক বরাদ্দ শেষে সাংবাদিকদের মাহি বলেন, প্রচার-প্রচারণা শুরু হওয়ার পর অনেকেই বলবেন তার ট্রাক খাদে পড়ে যাবে। চাকা পাংচার হয়ে যাবে।

এতেই তার প্রচার বেড়ে যাবে। সে কারণে তিনি ট্রাক প্রতীক বেছে নিয়েছেন। মাহি আরো বলেন, আমার সঙ্গে যারা প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আছেন তারা অনেক সিনিয়র। অনেকে আমার বয়সের বেশি সময় ধরে রাজনীতি করছেন। আমি তাদের মুক্ত করতে চাই। শাসক নয়, সেবক হয়ে মানুষের সেবা করতে চাই। সে কারণেই নির্বাচনে এসেছি। আশা করছি ভোটের ফল আমার পক্ষেই যাবে।

এদিকে একই আসনে আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি গোলাম রাব্বানী কাঁচি প্রতীকে ভোটের মাঠে লড়বেন। এছাড়াও আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার হেভিওয়েট প্রার্থী তিন বারের সংসদ সদস্য ও সাবেক শিল্পপ্রতি মন্ত্রী এবং সাবেক জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী সক্রিয় ভাবে রয়েছেন ভোটের মাঠে। এমপি ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, ভোট যে কেউ করতে পারে, এটা সবার গণতান্ত্রিক অধিকার।
এছাড়া এ আসনে বিএনএম থেকে নোঙ্গর প্রতীকে শামসুজ্জোহা বাবু ও লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে শামসুদ্দিন মন্ডল আছেন ভোটের মাঠে। তবে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী কে নিয়ে চলছে জোর প্রচারণা। নৌকার পোষ্টারে ছেয়ে গেছে উপজেলার বিভিন্ন পাড়া মহল্লা ও হাট বাজার। তফসিল অনুযায়ী, আগামী ৫ জানুয়ারি প্রচারণার শেষ দিন ও ৭ জানুয়ারি ভোট গ্রহণ হবে।


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে.সি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

রাজশাহী-১ আসনে নৌকার বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থী আ’লীগের রাব্বানী ও মাহি

আপডেট সময় : ০৪:০৫:১৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০২৩

তানোর প্রতিনিধি:


রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ভোটের মাঠে লড়ছেন তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি গোলাম রাব্বানী ও চিত্র নায়িকা মাহিয়া মাহি। মাহিয়া মাহি ট্রাক প্রতীক ও গোলাম রাব্বানী কাঁচি প্রতীক নিয়ে লড়ছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, সোমবার (১৮ ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ শুরু হয়। রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহিয়া মাহির কাছে জানতে চান তার পছন্দের কোন প্রতীক আছে কি না। এ সময় মাহি জানান, তার পছন্দের প্রতীক ট্রাক। অন্য কোন স্বতন্ত্র প্রার্থী ট্রাক প্রতীক না চাওয়ায় রিটার্নিং কর্মকর্তা প্রতীকটি মাহিয়া মাহিকেই বরাদ্দ দেন। প্রতীক বরাদ্দ শেষে সাংবাদিকদের মাহি বলেন, প্রচার-প্রচারণা শুরু হওয়ার পর অনেকেই বলবেন তার ট্রাক খাদে পড়ে যাবে। চাকা পাংচার হয়ে যাবে।

এতেই তার প্রচার বেড়ে যাবে। সে কারণে তিনি ট্রাক প্রতীক বেছে নিয়েছেন। মাহি আরো বলেন, আমার সঙ্গে যারা প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আছেন তারা অনেক সিনিয়র। অনেকে আমার বয়সের বেশি সময় ধরে রাজনীতি করছেন। আমি তাদের মুক্ত করতে চাই। শাসক নয়, সেবক হয়ে মানুষের সেবা করতে চাই। সে কারণেই নির্বাচনে এসেছি। আশা করছি ভোটের ফল আমার পক্ষেই যাবে।

এদিকে একই আসনে আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি গোলাম রাব্বানী কাঁচি প্রতীকে ভোটের মাঠে লড়বেন। এছাড়াও আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার হেভিওয়েট প্রার্থী তিন বারের সংসদ সদস্য ও সাবেক শিল্পপ্রতি মন্ত্রী এবং সাবেক জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী সক্রিয় ভাবে রয়েছেন ভোটের মাঠে। এমপি ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, ভোট যে কেউ করতে পারে, এটা সবার গণতান্ত্রিক অধিকার।
এছাড়া এ আসনে বিএনএম থেকে নোঙ্গর প্রতীকে শামসুজ্জোহা বাবু ও লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে শামসুদ্দিন মন্ডল আছেন ভোটের মাঠে। তবে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী কে নিয়ে চলছে জোর প্রচারণা। নৌকার পোষ্টারে ছেয়ে গেছে উপজেলার বিভিন্ন পাড়া মহল্লা ও হাট বাজার। তফসিল অনুযায়ী, আগামী ৫ জানুয়ারি প্রচারণার শেষ দিন ও ৭ জানুয়ারি ভোট গ্রহণ হবে।


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে.সি