ঢাকা ০২:৪০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পথসভার সভাপতি রাকিন আবসার অর্ণব সকল জনসাধারণকে এই মঞ্চে এসে অভিযোগ ও একাত্ব হয়ে দুর্নীতির বিরুদ্ধে এগিয়ে আশার আহবান জানান

দুর্নীতির বিরুদ্ধে গড়ে উঠুক নৈতিকতার অগ্নিদেয়াল

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:০৭:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জুলাই ২০২৪ ১২ বার পড়া হয়েছে

দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমরা

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহীতে কোনোরকম দুর্নীতি হতে দেয়া হবে না। দুর্নীতিবাজ যত ক্ষমতাবান হোক, তাকে প্রতিহত করা হবে। টাকাপাচারকারী আর লুটেরাদের হাত থেকে রাজশাহীর মানুষ মুক্ত হতে চায় এমন বক্তব্য দেন দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমরা নামক নাগরিক মঞ্চ।

সোমবার বিকেলে (৮জুলাই) নগরীর জিরো পয়েন্ট মোড়ে দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমরা নামক একটি নাগরিক মঞ্চ পথসভা করেছে। তরুণ নির্ভর এই সংগঠনে সচেতন নাগরিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন, আদিবাসী সংগঠন সহ তরুণ নেতৃত্ব উপস্থিত ছিলেন।

এই মঞ্চ থেকে নেতৃবৃন্দ জনগণের উদ্যেশে দাবি ঘোষণা দিয়েছে যে রাজশাহী শহরের সকল পরিবেশ ও প্রাতিষ্ঠানিক দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমরা এই মঞ্চ থেকে বাধা সৃষ্টি করবো এবং সেই সাথে দুর্নীতি মুক্ত করতে ঐক্যবদ্ধভাবে আমরা আওয়াজ তুলবো। এখানে কাউকে ছেড়ে দেয়া হবে না। তাই আপনারা সাবধান হয়ে নিজের পরিবর্তন আনুন।

দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমরা এই ব্যানারে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. ফরিদ খান বলেন, মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন প্রয়োজন । কিন্তু উন্নয়ন কি হবে? উন্নয়ন হচ্ছে দুর্নীতির। কৃষক ও খেটে খাওয়া মানুষ পড়ছে বিপাকে। আমরা স্বাধীন হয়েছি ঠিক কিন্তু আমাদের আর্থিক স্বাধীনতা কোথায় ?

এদিকে মঞ্চে দাড়িয়ে গণসংহতি আন্দোলন রাজশাহী জেলার আহবায়ক এ্যাডডোকেট মুরাদ মোর্শেদ বলছেন, এই সমাবেশ সংহতি প্রকাশের সমাবেশ, যার উদ্দেশ্য দুর্নীতির বিরুদ্ধে যাত্রা শুরু করা। যারা সমাজের চিন্তার মানুষ আছে তারা যেন সেটা প্রকাশ করতে পারে। তবে এই বিনিময় ঘরে বসে হচ্ছে না । করতে হচ্ছে রাজপথে। আমরা রাজপথে বসেই আমাদের আন্দোলন চলমান রাখবো। বেশ কিছু দলীয় সংগঠন আছে যারা মনে করে দেশ  তারাই স্বাধীন করেছে। সেহেতু তারা এই দেশের জমিদার। এই দেশ তাদের। বড় বড় দুর্নীতি যারা করেন, পুকুর চুরি করেন ইত্যাদি চুরি করেন রাজশাহীতে বসে করেন গোপনে তারা আন্ডার হ্যান্ড করে কাদের সাথে করেন এই প্রশ্ন আমার?

পরে রাজশাহী প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট আসলাম উদ দৌলা ও পরিবেশ আন্দোলন ঐক্য পরিষদের সমন্বয়ক নাজমুল হোসেন রাজু বলেন, রাজশাহীতে একজন ভাইয়া আছেন। সেই ভাইয়ার কাছে গেলে সহজেই পুকুর ভরাট করতে পারবেন, আপনার জমি শ্রেণি পরিবর্তন করতে পারবেন, আপনি ইচ্ছা করলেই প্লটের ব্যবসা করতে পারবেন, আপনি ইচ্ছা করলে ভূমিদস্যু হতে পারবেন। ভাই এই সকল মানুষদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে প্রশাসনের মাধ্যমে। যদিও প্রশাসনকেও তারা নিজের সম্পত্তি মনে করে। তবে মানুষ যেমন ব্রিটিশদের, পাকিস্তানিদের এই দেশ থেকে বিতারিত করেছে তেমনি এদেরও বিতারিত করা হবে। শুধু সময়ের অপেক্ষা।

শেষে পথসভার সভাপতি রাকিন আবসার অর্ণব সকল জনসাধারণকে এই মঞ্চে এসে অভিযোগ ও একাত্ব হয়ে দুর্নীতির বিরুদ্ধে এগিয়ে আসার আহবান জানান। সেই সাথে ব্যানারে নম্বর দেন যেন রাজশাহীর যে কোন অবস্থানের দুর্নীতি হলে যেন ভুক্তভোগী জনগণ তাদের জানান ও সেটি নিয়ে এই মঞ্চ একাত্ব হয়ে আন্দোলন গড়ে তুলবে ও এই দুর্নীতিবাজদের আইনের আওতায় আনবে।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি

 

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

পথসভার সভাপতি রাকিন আবসার অর্ণব সকল জনসাধারণকে এই মঞ্চে এসে অভিযোগ ও একাত্ব হয়ে দুর্নীতির বিরুদ্ধে এগিয়ে আশার আহবান জানান

দুর্নীতির বিরুদ্ধে গড়ে উঠুক নৈতিকতার অগ্নিদেয়াল

আপডেট সময় : ০৫:০৭:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জুলাই ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহীতে কোনোরকম দুর্নীতি হতে দেয়া হবে না। দুর্নীতিবাজ যত ক্ষমতাবান হোক, তাকে প্রতিহত করা হবে। টাকাপাচারকারী আর লুটেরাদের হাত থেকে রাজশাহীর মানুষ মুক্ত হতে চায় এমন বক্তব্য দেন দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমরা নামক নাগরিক মঞ্চ।

সোমবার বিকেলে (৮জুলাই) নগরীর জিরো পয়েন্ট মোড়ে দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমরা নামক একটি নাগরিক মঞ্চ পথসভা করেছে। তরুণ নির্ভর এই সংগঠনে সচেতন নাগরিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন, আদিবাসী সংগঠন সহ তরুণ নেতৃত্ব উপস্থিত ছিলেন।

এই মঞ্চ থেকে নেতৃবৃন্দ জনগণের উদ্যেশে দাবি ঘোষণা দিয়েছে যে রাজশাহী শহরের সকল পরিবেশ ও প্রাতিষ্ঠানিক দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমরা এই মঞ্চ থেকে বাধা সৃষ্টি করবো এবং সেই সাথে দুর্নীতি মুক্ত করতে ঐক্যবদ্ধভাবে আমরা আওয়াজ তুলবো। এখানে কাউকে ছেড়ে দেয়া হবে না। তাই আপনারা সাবধান হয়ে নিজের পরিবর্তন আনুন।

দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমরা এই ব্যানারে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. ফরিদ খান বলেন, মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন প্রয়োজন । কিন্তু উন্নয়ন কি হবে? উন্নয়ন হচ্ছে দুর্নীতির। কৃষক ও খেটে খাওয়া মানুষ পড়ছে বিপাকে। আমরা স্বাধীন হয়েছি ঠিক কিন্তু আমাদের আর্থিক স্বাধীনতা কোথায় ?

এদিকে মঞ্চে দাড়িয়ে গণসংহতি আন্দোলন রাজশাহী জেলার আহবায়ক এ্যাডডোকেট মুরাদ মোর্শেদ বলছেন, এই সমাবেশ সংহতি প্রকাশের সমাবেশ, যার উদ্দেশ্য দুর্নীতির বিরুদ্ধে যাত্রা শুরু করা। যারা সমাজের চিন্তার মানুষ আছে তারা যেন সেটা প্রকাশ করতে পারে। তবে এই বিনিময় ঘরে বসে হচ্ছে না । করতে হচ্ছে রাজপথে। আমরা রাজপথে বসেই আমাদের আন্দোলন চলমান রাখবো। বেশ কিছু দলীয় সংগঠন আছে যারা মনে করে দেশ  তারাই স্বাধীন করেছে। সেহেতু তারা এই দেশের জমিদার। এই দেশ তাদের। বড় বড় দুর্নীতি যারা করেন, পুকুর চুরি করেন ইত্যাদি চুরি করেন রাজশাহীতে বসে করেন গোপনে তারা আন্ডার হ্যান্ড করে কাদের সাথে করেন এই প্রশ্ন আমার?

পরে রাজশাহী প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট আসলাম উদ দৌলা ও পরিবেশ আন্দোলন ঐক্য পরিষদের সমন্বয়ক নাজমুল হোসেন রাজু বলেন, রাজশাহীতে একজন ভাইয়া আছেন। সেই ভাইয়ার কাছে গেলে সহজেই পুকুর ভরাট করতে পারবেন, আপনার জমি শ্রেণি পরিবর্তন করতে পারবেন, আপনি ইচ্ছা করলেই প্লটের ব্যবসা করতে পারবেন, আপনি ইচ্ছা করলে ভূমিদস্যু হতে পারবেন। ভাই এই সকল মানুষদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে প্রশাসনের মাধ্যমে। যদিও প্রশাসনকেও তারা নিজের সম্পত্তি মনে করে। তবে মানুষ যেমন ব্রিটিশদের, পাকিস্তানিদের এই দেশ থেকে বিতারিত করেছে তেমনি এদেরও বিতারিত করা হবে। শুধু সময়ের অপেক্ষা।

শেষে পথসভার সভাপতি রাকিন আবসার অর্ণব সকল জনসাধারণকে এই মঞ্চে এসে অভিযোগ ও একাত্ব হয়ে দুর্নীতির বিরুদ্ধে এগিয়ে আসার আহবান জানান। সেই সাথে ব্যানারে নম্বর দেন যেন রাজশাহীর যে কোন অবস্থানের দুর্নীতি হলে যেন ভুক্তভোগী জনগণ তাদের জানান ও সেটি নিয়ে এই মঞ্চ একাত্ব হয়ে আন্দোলন গড়ে তুলবে ও এই দুর্নীতিবাজদের আইনের আওতায় আনবে।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি