ঢাকা ০৮:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজশাহীতে গুড়ের ১২ কারখানায় ৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা জরিমানা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:২৮:৪৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ মার্চ ২০২৪ ৪৩ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক :


বাঘায় ১২ গুড় তৈরি কারখানায় ৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় ভেজাল গুড় তৈরি কারখানায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এই জরিমানা করা হয়েছে।

জানা যায়, কারখানার মালিকরা দীর্ঘদিন থেকে চিনি, মোনালিসা, নানা রকম কেমিক্যাল, চুন, রং, হাইড্রোজ, ফিটকিরি, ডালডা ও আটা ব্যবহার করে গুড় তৈরি করছিলেন। স্থানীয়দের এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে জাতীয় ভক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তরের রাজশাহী বিভাগীয় উপ-পরিচালক অভিযান পরিচালনা করেন।

এ সময় আড়ানী ইউনিয়নের খোর্দ্দবাউসা গ্রামের মঞ্জুরুল ইসলামের কারখানায় ১ লক্ষ, সহাপুর গ্রামের মুক্তার আলীর মিম ট্রেডার্সে ৩০ হাজার, সাহাপুর সাজিপাড়া গ্রামের সুজন টেডার্সে ৩০ হাজার, শরিফ টেডার্সে ২০ হাজার, সাহাপুর গ্রামে মোমিনের গুড়ের আড়তে ১৫ হাজার, চকসিংগা গ্রামে আলিল ট্রেডাসে ২০ হাজার, চকসিংগা গ্রামে রমজান ট্রেডার্সে ২০ হাজার, মনিগ্রামে মাজেদুলের গুড়ের আড়তে ২০ হাজার, এলাহী ট্রেডার্সে ৩০ হাজার, মনিগ্রাম শামিম হোসেনের কারখানায় ১০ হাজার টাকা, হায়দার আলীর ৩০ হাজার, নাজিম উদ্দিনের ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জাতীয় ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তরের রাজশাহী বিভাগীয় উপ-পরিচালক ইব্রাহীম হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গুড়ের কারখানার মালিকরা অপরিষ্কার ও বিষাক্ত রাসায়নিব দ্রব্য ব্যবহার করে গুড় তৈরি করছিলেন। এ অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে জরিমানা ও ২৪০ কেজি গুড়, চিনি, মোনালিসা, নানা রকম কেমিক্যাল, চুন, রং, হাইড্রোজ, ফিটকিরি, ডালডা ও আটা জব্দ করে জনসম্মুখে ধ্বংস করা হয়েছে।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

রাজশাহীতে গুড়ের ১২ কারখানায় ৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা জরিমানা

আপডেট সময় : ০১:২৮:৪৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ মার্চ ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক :


বাঘায় ১২ গুড় তৈরি কারখানায় ৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় ভেজাল গুড় তৈরি কারখানায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এই জরিমানা করা হয়েছে।

জানা যায়, কারখানার মালিকরা দীর্ঘদিন থেকে চিনি, মোনালিসা, নানা রকম কেমিক্যাল, চুন, রং, হাইড্রোজ, ফিটকিরি, ডালডা ও আটা ব্যবহার করে গুড় তৈরি করছিলেন। স্থানীয়দের এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে জাতীয় ভক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তরের রাজশাহী বিভাগীয় উপ-পরিচালক অভিযান পরিচালনা করেন।

এ সময় আড়ানী ইউনিয়নের খোর্দ্দবাউসা গ্রামের মঞ্জুরুল ইসলামের কারখানায় ১ লক্ষ, সহাপুর গ্রামের মুক্তার আলীর মিম ট্রেডার্সে ৩০ হাজার, সাহাপুর সাজিপাড়া গ্রামের সুজন টেডার্সে ৩০ হাজার, শরিফ টেডার্সে ২০ হাজার, সাহাপুর গ্রামে মোমিনের গুড়ের আড়তে ১৫ হাজার, চকসিংগা গ্রামে আলিল ট্রেডাসে ২০ হাজার, চকসিংগা গ্রামে রমজান ট্রেডার্সে ২০ হাজার, মনিগ্রামে মাজেদুলের গুড়ের আড়তে ২০ হাজার, এলাহী ট্রেডার্সে ৩০ হাজার, মনিগ্রাম শামিম হোসেনের কারখানায় ১০ হাজার টাকা, হায়দার আলীর ৩০ হাজার, নাজিম উদ্দিনের ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জাতীয় ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তরের রাজশাহী বিভাগীয় উপ-পরিচালক ইব্রাহীম হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গুড়ের কারখানার মালিকরা অপরিষ্কার ও বিষাক্ত রাসায়নিব দ্রব্য ব্যবহার করে গুড় তৈরি করছিলেন। এ অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে জরিমানা ও ২৪০ কেজি গুড়, চিনি, মোনালিসা, নানা রকম কেমিক্যাল, চুন, রং, হাইড্রোজ, ফিটকিরি, ডালডা ও আটা জব্দ করে জনসম্মুখে ধ্বংস করা হয়েছে।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি