ঢাকা ০৭:০০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিক্ষক রায়হান শরীফকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:০২:২৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৬ মার্চ ২০২৪ ৮৪ বার পড়া হয়েছে

নিউজ ডেস্ক:


সিরাজগঞ্জের শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজের এক শিক্ষার্থীকে গুলি করার ঘটনায় কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের শিক্ষক রায়হান শরীফকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

বুধবার (৬ মার্চ) দুপুরে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উপসচিব দূর-রে শাহওয়াজ স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ডা. রায়হান শরীফ ফৌজদারি অপরাধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক গ্রেপ্তার হওয়ার তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো। সাময়িক বরখাস্তকালীন তিনি বিধি মোতাবেক খোরপোষ ভাতা প্রাপ্ত হবেন।

এর আগে, গত সোমবার (৪ মার্চ) বিকেলে ক্লাস চলাকালীন আরাফাত আমিন তমাল (২২) নামের এক শিক্ষার্থীকে গুলি করেন শিক্ষক রায়হান শরীফ। এ ঘটনার পরে অবৈধ অস্ত্র রাখার অপরাধে পুলিশ বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে মামলা করে।

এছাড়া, আহত শিক্ষার্থীর বাবা আব্দুল্লাহ আল আমিন আরেকটি মামলা করেন। এসব মামলায় শরীফকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। বর্তমানে তিনি জেল হাজতে রয়েছেন।

রায়হান শরীফ আদালতে স্বীকারোক্তিতে বলেছেন, তিনি ওই শিক্ষার্থীকে গুলি করেছেন। তবে, ভয় দেখাতে পিস্তলটি বের করেছিলেন। কিন্তু অনিচ্ছাকৃতভাবে গুলি বের হয়ে যায়।

গুলি ছোড়ার ঘটনায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গঠিত তিন সদস্যের তদন্ত কমিটির সঙ্গেও কথা বলেছেন রায়হান শরীফ। তিনি স্বীকার করেছেন, তার কাছে দুটি পিস্তল আছে। তবে, একটিরও লাইসেন্স নেই।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

শিক্ষক রায়হান শরীফকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ

আপডেট সময় : ০৯:০২:২৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৬ মার্চ ২০২৪

নিউজ ডেস্ক:


সিরাজগঞ্জের শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজের এক শিক্ষার্থীকে গুলি করার ঘটনায় কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের শিক্ষক রায়হান শরীফকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

বুধবার (৬ মার্চ) দুপুরে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উপসচিব দূর-রে শাহওয়াজ স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ডা. রায়হান শরীফ ফৌজদারি অপরাধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক গ্রেপ্তার হওয়ার তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো। সাময়িক বরখাস্তকালীন তিনি বিধি মোতাবেক খোরপোষ ভাতা প্রাপ্ত হবেন।

এর আগে, গত সোমবার (৪ মার্চ) বিকেলে ক্লাস চলাকালীন আরাফাত আমিন তমাল (২২) নামের এক শিক্ষার্থীকে গুলি করেন শিক্ষক রায়হান শরীফ। এ ঘটনার পরে অবৈধ অস্ত্র রাখার অপরাধে পুলিশ বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে মামলা করে।

এছাড়া, আহত শিক্ষার্থীর বাবা আব্দুল্লাহ আল আমিন আরেকটি মামলা করেন। এসব মামলায় শরীফকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। বর্তমানে তিনি জেল হাজতে রয়েছেন।

রায়হান শরীফ আদালতে স্বীকারোক্তিতে বলেছেন, তিনি ওই শিক্ষার্থীকে গুলি করেছেন। তবে, ভয় দেখাতে পিস্তলটি বের করেছিলেন। কিন্তু অনিচ্ছাকৃতভাবে গুলি বের হয়ে যায়।

গুলি ছোড়ার ঘটনায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গঠিত তিন সদস্যের তদন্ত কমিটির সঙ্গেও কথা বলেছেন রায়হান শরীফ। তিনি স্বীকার করেছেন, তার কাছে দুটি পিস্তল আছে। তবে, একটিরও লাইসেন্স নেই।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি