ঢাকা ০৫:৫৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তানোরে গলায় ফাঁস দিয়ে মানসিক ভারসাম্যহীন রোগীর আত্নহত্যা

সারোয়ার হোসেন
  • আপডেট সময় : ০৪:৫৮:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ অক্টোবর ২০২৩ ১২৮ বার পড়া হয়েছে

তানোর প্রতিনিধি:


রাজশাহীর তানোরে গলায় ফাঁস দিয়ে একজনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এমন চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে, শনিবার (৭ অক্টোবর) উপজেলার পাঁচন্দর ইউনিয়নের পাঁচন্দর কাউন্সিল মোড়ে। নিহত আফছার(৫২) আলীর বাড়ী মুন্ডুমালা পৌর এলাকার পাঁচন্দর ইউনিয়নের পাঁচন্দর উত্তর পাড়া গ্রামে। সকাল ১১টার দিকে পাঁচন্দর কাউন্সিল মোড়ের পাশ্ববর্তী একটি নিম গাছের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করেছেন আফছার আলী।

জানা গেছে, নিহত আফছার আলী একজন মানসিক ভারসাম্যহীন মানুষ। তার দুটি মেয়ে সন্তান ও স্ত্রী আছে। তার দুই মেয়ের বিয়েও হয়ে গেছে। কয়েক দিন আগে তার দাঁতের ব্যাথা উঠলে তাকে চিকিৎসা করে পরিবারের লোকজন। এসময় আফছার আলী তার পরিবারের লোকজন কে বলেন, আমি আর বাঁচবনা। আমি পাগল হয়ে গেছি।

কিন্তু তার পরিবারের লোকজন তার কথা শুনলেও প্রতিদিনের ন্যায় চলছিল। প্রতিদিনের মতো আজও সকাল ১০টার দিকে খাওয়া দাওয়া করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান আফছার আলী। তার ঘন্টা খানেকের মধ্যে বাড়িতে খবর পান আফছার আলী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করেছেন। এবিষয়ে তানোর মুন্ডুমালা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ (আইসি) জানান, পরিবার থেকে কেউ বাদী না হওয়ায় লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে।


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে.সি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

তানোরে গলায় ফাঁস দিয়ে মানসিক ভারসাম্যহীন রোগীর আত্নহত্যা

আপডেট সময় : ০৪:৫৮:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ অক্টোবর ২০২৩

তানোর প্রতিনিধি:


রাজশাহীর তানোরে গলায় ফাঁস দিয়ে একজনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এমন চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে, শনিবার (৭ অক্টোবর) উপজেলার পাঁচন্দর ইউনিয়নের পাঁচন্দর কাউন্সিল মোড়ে। নিহত আফছার(৫২) আলীর বাড়ী মুন্ডুমালা পৌর এলাকার পাঁচন্দর ইউনিয়নের পাঁচন্দর উত্তর পাড়া গ্রামে। সকাল ১১টার দিকে পাঁচন্দর কাউন্সিল মোড়ের পাশ্ববর্তী একটি নিম গাছের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করেছেন আফছার আলী।

জানা গেছে, নিহত আফছার আলী একজন মানসিক ভারসাম্যহীন মানুষ। তার দুটি মেয়ে সন্তান ও স্ত্রী আছে। তার দুই মেয়ের বিয়েও হয়ে গেছে। কয়েক দিন আগে তার দাঁতের ব্যাথা উঠলে তাকে চিকিৎসা করে পরিবারের লোকজন। এসময় আফছার আলী তার পরিবারের লোকজন কে বলেন, আমি আর বাঁচবনা। আমি পাগল হয়ে গেছি।

কিন্তু তার পরিবারের লোকজন তার কথা শুনলেও প্রতিদিনের ন্যায় চলছিল। প্রতিদিনের মতো আজও সকাল ১০টার দিকে খাওয়া দাওয়া করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান আফছার আলী। তার ঘন্টা খানেকের মধ্যে বাড়িতে খবর পান আফছার আলী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করেছেন। এবিষয়ে তানোর মুন্ডুমালা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ (আইসি) জানান, পরিবার থেকে কেউ বাদী না হওয়ায় লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে।


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে.সি