ঢাকা ০৮:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

 বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল

সারোয়ার হোসেন
  • আপডেট সময় : ০৫:২৩:২৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ৭৬ বার পড়া হয়েছে

তানোর প্রতিনিধি:


বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার আশু রোগমুক্তি কামনায় রাজশাহীর তানোরে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকেলের দিকে পৌর সদর গোল্লাপাড়া বাজারস্থ বরেন্দ্র ভবন সংলগ্ন দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা ও পৌর বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় দোয়া মাহফিল।

উপজেলা বিএনপির আহবায়ক আখেরুজ্জামান হান্নানের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিজান, পৌর বিএনপির সভাপতি একরাম আলী মোল্লা, উপজেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক তোফাজ্জুল হক তোফা,যুবদল নেতা মাহফুজ প্রমুখ। প্রধান বক্তা মিজানুর রহমান বলেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় আপামর জনতার নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া মারাত্মক অসুস্থ। মেডিকেল বোর্ড বারবার বলছেন বিদেশে নিয়ে চিকিৎসা দিতে হবে।

কিন্তু অবৈধ ফ্যাসিষ্ট সরকার প্রতিহিংসা বশত চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে দিচ্ছেন না। হাসপাতালে ধুঁকে ধুকে মেরে ফেলার নীল নকশা তৈরি করেছেন। বেগম জিয়ার এঅবস্থায় কিছু হলে সরকারকে সব দায়ভার নিতে হবে। দেশের মানুষ যখন সরকার পতনের একদফা আন্দোলন করছেন তখন থেকেই বিএনপিসহ আন্দোলন রত দলের নেতাকর্মীদের নামে গায়েবি মিথ্যা মামলা দিয়ে ধরপাকড় শুরু করেছেন। সবচেয়ে অবাক লাগে ঢাকায় নাকি দলের মহা সচিব মির্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীরকে প্রবেশ করতে দিবেন না বলে ভোটার বিহীন মেয়র তাপস ঘোষনা দিয়েছেন। আসলে সরকারের পায়ের তলায় মাটি নেই। তারাও ভালভাবেই জানেন নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিলে তাদের মারাত্মক ভরাডুবি হবে।

একারনে তারা বলছে বিএনপি ক্ষমতায় এলে নাকি সবাই কে কেটে ফেলবে। সরকারকে পরিস্কার ভাবে বলতে চায় দ্রুত পদত্যাগ করুন বাংলার মানুষ আপনাদেরকে আর ক্ষমতার মসনদে দেখতে চায় না। যদি এক তরফা বা ২০১৪ ও ২০১৮ সালের মত রাতে ভোট করতে চান সেটা হতে দিবেনা। আর এমন স্বপ্ন যদি দেখে থাকেন তাহলে বোকার সর্গে বাস করছেন। এত উন্নয়ন করেছেন তাহলে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে ভোট দিতে এত ভয় কেন। বিএনপি প্রতিহিংসার রাজনীতি করেনা। বিএনপি এদেশের আপামর জনতার দল। আর কত পুলিশ প্রশাসনের উপর ভর করে থাকবেন, দ্রুত পদত্যাগ করে জনগণকে রেহায় দিন।

বিএনপি এখন নির্বাচনের কথা ভাবছেনা, বিএনপি চায় এই অবৈধ সরকারের পতন। কারন উন্নয়নের কথা বলে যে ভাবে লুটপাট করে দেশকে পঙ্গু করেছেন তার হিসাব এই জনগণকে দিতে হবে এবং আদায় করে নিবে। এই সরকার জনগণের না, এই সরকার আমলাদের।এজন্যই তো আমলারাও বিদেশের মাটিতে বাড়ি গাড়ি কিনে রেখেছেন।

দ্রুত দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে বিদেশে চিকিৎসার ব্যবস্থা করুন। শেষে অসুস্থ বেগম জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপজেলা ও পৌরসভার বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে.সি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

 বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল

আপডেট সময় : ০৫:২৩:২৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২৩

তানোর প্রতিনিধি:


বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার আশু রোগমুক্তি কামনায় রাজশাহীর তানোরে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকেলের দিকে পৌর সদর গোল্লাপাড়া বাজারস্থ বরেন্দ্র ভবন সংলগ্ন দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা ও পৌর বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় দোয়া মাহফিল।

উপজেলা বিএনপির আহবায়ক আখেরুজ্জামান হান্নানের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিজান, পৌর বিএনপির সভাপতি একরাম আলী মোল্লা, উপজেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক তোফাজ্জুল হক তোফা,যুবদল নেতা মাহফুজ প্রমুখ। প্রধান বক্তা মিজানুর রহমান বলেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় আপামর জনতার নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া মারাত্মক অসুস্থ। মেডিকেল বোর্ড বারবার বলছেন বিদেশে নিয়ে চিকিৎসা দিতে হবে।

কিন্তু অবৈধ ফ্যাসিষ্ট সরকার প্রতিহিংসা বশত চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে দিচ্ছেন না। হাসপাতালে ধুঁকে ধুকে মেরে ফেলার নীল নকশা তৈরি করেছেন। বেগম জিয়ার এঅবস্থায় কিছু হলে সরকারকে সব দায়ভার নিতে হবে। দেশের মানুষ যখন সরকার পতনের একদফা আন্দোলন করছেন তখন থেকেই বিএনপিসহ আন্দোলন রত দলের নেতাকর্মীদের নামে গায়েবি মিথ্যা মামলা দিয়ে ধরপাকড় শুরু করেছেন। সবচেয়ে অবাক লাগে ঢাকায় নাকি দলের মহা সচিব মির্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীরকে প্রবেশ করতে দিবেন না বলে ভোটার বিহীন মেয়র তাপস ঘোষনা দিয়েছেন। আসলে সরকারের পায়ের তলায় মাটি নেই। তারাও ভালভাবেই জানেন নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিলে তাদের মারাত্মক ভরাডুবি হবে।

একারনে তারা বলছে বিএনপি ক্ষমতায় এলে নাকি সবাই কে কেটে ফেলবে। সরকারকে পরিস্কার ভাবে বলতে চায় দ্রুত পদত্যাগ করুন বাংলার মানুষ আপনাদেরকে আর ক্ষমতার মসনদে দেখতে চায় না। যদি এক তরফা বা ২০১৪ ও ২০১৮ সালের মত রাতে ভোট করতে চান সেটা হতে দিবেনা। আর এমন স্বপ্ন যদি দেখে থাকেন তাহলে বোকার সর্গে বাস করছেন। এত উন্নয়ন করেছেন তাহলে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে ভোট দিতে এত ভয় কেন। বিএনপি প্রতিহিংসার রাজনীতি করেনা। বিএনপি এদেশের আপামর জনতার দল। আর কত পুলিশ প্রশাসনের উপর ভর করে থাকবেন, দ্রুত পদত্যাগ করে জনগণকে রেহায় দিন।

বিএনপি এখন নির্বাচনের কথা ভাবছেনা, বিএনপি চায় এই অবৈধ সরকারের পতন। কারন উন্নয়নের কথা বলে যে ভাবে লুটপাট করে দেশকে পঙ্গু করেছেন তার হিসাব এই জনগণকে দিতে হবে এবং আদায় করে নিবে। এই সরকার জনগণের না, এই সরকার আমলাদের।এজন্যই তো আমলারাও বিদেশের মাটিতে বাড়ি গাড়ি কিনে রেখেছেন।

দ্রুত দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে বিদেশে চিকিৎসার ব্যবস্থা করুন। শেষে অসুস্থ বেগম জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপজেলা ও পৌরসভার বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে.সি