ঢাকা ০৫:১৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজশাহীতে আলোকিত শিশু প্রকল্পের মিডিয়া ক্যাম্পেইন

মাইকেল
  • আপডেট সময় : ০৫:৫৪:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ জুন ২০২৩ ৭৮ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহীতে আলোকিত শিশু প্রকল্পের মিডিয়া ক্যাম্পেইনআলোকিত শিশু প্রকল্প, কারিতাস রাজশাহী অঞ্চলের আয়োজনে Let us say yes together to the street Children মূলসুরকে কেন্দ্র করে
আজ সোমবার ১২ ই জুন ২০২৩ সকাল সাড়ে ১০ টায় ড্রপ ইন সেন্টার অফিস, বাসা নং -৪৩৮, পদ্মা আবাসিক রাজশাহীতে অনুষ্ঠিত হয় মিডিয়া ক্যাম্পেইন।

সার্বজনীন প্রার্থনার মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়।শুরুতে আলোকিত শিশু প্রকল্পের প্রকল্পের জুনিয়র কর্মসুচি কর্মকর্তা মোঃ ফরিদুল ইসলাম সবাইকে সাদর সম্ভাষণ জানান এবং প্রকল্পের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য সম্পর্কে আলোচনা করেন।তিনি বলেন ”আলোকিত শিশু প্রকল্প রাজশাহী অঞ্চলের পথশিশু এবং বস্তির শিশুদের জন্য কাজ করছে।রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ২০ টি স্পটের পথশিশু ও বস্তীর শিশুদের নিয়ে কাজ চলমান আছে।পথশিশুদের জন্ম নিবন্ধন প্রদানসহ সরকারি সামাজিক নিরাপত্তা বলয়ে সুযোগ সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রকল্পটি নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ”
প্রধান অথিতির বক্তব্যে আকবারুল হাসান মিল্লাত বলেন, ” যারা মূলস্রোতধারার বাইরে আছে তাদের খেয়াল রাখা উচিত। তারা যেন সুন্দর জীবন পেতে পারে।কেননা শিশুরা হচ্ছে ভবিষ্যতের সম্পদ।নিজের সন্তানের মত গুরুত্ব দেওয়া উচিৎ। শিশুরা বিছিন্ন ভাবে বেড়ে উঠলে সমাজ বা পরিবারের প্রতি তার কোন দায়বদ্ধতা থাকে না।যারা সমাজের জন্য হুমকিস্বরুপ।”

তিনি আরো বলেন,”পথশিশুদের মূলস্রোতধারায় নেওয়ার জন্য কারিতাস বাংলাদেশ সত্যি মহৎ কাজ করছে।যা একটি ভাল উদ্যোগ। এসব শিশুদের মুলধারায় নেওয়ার জন্য সরকারের পরিকল্পনা আছে। তা যেন তাড়াতাড়ি বাস্তবায়িত হয়।সিটি কর্পোরেশন নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করে থাকে।

আমরা চাইব পথশিশুদের অধিকারের ব্যাপারে সক্রিয় ভূমিকা রাখবে। ”
আলোকিত শিশু প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ন্যান্সি রুথ হাঁসদা বলেন,পথশিশুদের অধিকার সুরক্ষিত করার জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের প্রকল্পের আওতায় মোট শিশু আছে ৬৫০ জন শিশু,।যাদের মধ্যে ছেলে শিশু ৩৩০ এবং মেয়ে শিশু ৩২০ জন।যাদের মধ্যে জন্ম নিবন্ধন রয়েছে ৬৪০ জন শিশু ও ১০ জনের নেই।

আমরা চাই এধরণের কাজে সহযোগিতার জন্য সবাই এগিয়ে আসুক।তাহলে আমরা সকল পথশিশুদের জন্য সুন্দর পরিবেশ তৈরি করতে পারব।যদি স্থানীয় সরকার বিভাগ এ বিষয়ে সহযোগিতা করে তাহলে কাজটা আরো সুন্দর ভাবে এগিয়ে নেওয়া যাবে।কেননা দাতা সংস্থাগুলোও বলছে আমরা যেন তাদের দান নির্ভর না হই।”
পরিশেষে সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে ক্যাম্পেইনের ইতি টানেন।উক্ত ক্যাম্পেইনে
কারিতাস রাজশাহী অঞ্চলের আলোকিত শিশু প্রকল্পের কর্মকর্তা কর্মচারীগণসহ বিভিন্ন প্রিন্ট মিডিয়া ও ইলেকট্রনিকস মিডিয়াকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য যে,আলোকিত শিশু প্রকল্প একটি ড্রপ ইন সেন্টার এর পাশাপাশি বহরমপুরে একট এবং মহিষবাথান উত্তর পাড়ায় একটিসহ মোট দুটি উন্মুক্ত স্কুল পরিচালনা করছে। স্কুলে ৬০ জন শিশু সেবা পাচ্ছে। ড্রপ ইন সেন্টারে প্রতিদিন গড়ে ২০/২৫ জন শিশুকে পুষ্টিকর খাবার দেওয়া,নৈতিক শিক্ষা ও প্রাথমিক শিক্ষা দেওয়া হচ্ছে।


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে. সি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

রাজশাহীতে আলোকিত শিশু প্রকল্পের মিডিয়া ক্যাম্পেইন

আপডেট সময় : ০৫:৫৪:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ জুন ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহীতে আলোকিত শিশু প্রকল্পের মিডিয়া ক্যাম্পেইনআলোকিত শিশু প্রকল্প, কারিতাস রাজশাহী অঞ্চলের আয়োজনে Let us say yes together to the street Children মূলসুরকে কেন্দ্র করে
আজ সোমবার ১২ ই জুন ২০২৩ সকাল সাড়ে ১০ টায় ড্রপ ইন সেন্টার অফিস, বাসা নং -৪৩৮, পদ্মা আবাসিক রাজশাহীতে অনুষ্ঠিত হয় মিডিয়া ক্যাম্পেইন।

সার্বজনীন প্রার্থনার মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়।শুরুতে আলোকিত শিশু প্রকল্পের প্রকল্পের জুনিয়র কর্মসুচি কর্মকর্তা মোঃ ফরিদুল ইসলাম সবাইকে সাদর সম্ভাষণ জানান এবং প্রকল্পের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য সম্পর্কে আলোচনা করেন।তিনি বলেন ”আলোকিত শিশু প্রকল্প রাজশাহী অঞ্চলের পথশিশু এবং বস্তির শিশুদের জন্য কাজ করছে।রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ২০ টি স্পটের পথশিশু ও বস্তীর শিশুদের নিয়ে কাজ চলমান আছে।পথশিশুদের জন্ম নিবন্ধন প্রদানসহ সরকারি সামাজিক নিরাপত্তা বলয়ে সুযোগ সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রকল্পটি নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ”
প্রধান অথিতির বক্তব্যে আকবারুল হাসান মিল্লাত বলেন, ” যারা মূলস্রোতধারার বাইরে আছে তাদের খেয়াল রাখা উচিত। তারা যেন সুন্দর জীবন পেতে পারে।কেননা শিশুরা হচ্ছে ভবিষ্যতের সম্পদ।নিজের সন্তানের মত গুরুত্ব দেওয়া উচিৎ। শিশুরা বিছিন্ন ভাবে বেড়ে উঠলে সমাজ বা পরিবারের প্রতি তার কোন দায়বদ্ধতা থাকে না।যারা সমাজের জন্য হুমকিস্বরুপ।”

তিনি আরো বলেন,”পথশিশুদের মূলস্রোতধারায় নেওয়ার জন্য কারিতাস বাংলাদেশ সত্যি মহৎ কাজ করছে।যা একটি ভাল উদ্যোগ। এসব শিশুদের মুলধারায় নেওয়ার জন্য সরকারের পরিকল্পনা আছে। তা যেন তাড়াতাড়ি বাস্তবায়িত হয়।সিটি কর্পোরেশন নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করে থাকে।

আমরা চাইব পথশিশুদের অধিকারের ব্যাপারে সক্রিয় ভূমিকা রাখবে। ”
আলোকিত শিশু প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ন্যান্সি রুথ হাঁসদা বলেন,পথশিশুদের অধিকার সুরক্ষিত করার জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের প্রকল্পের আওতায় মোট শিশু আছে ৬৫০ জন শিশু,।যাদের মধ্যে ছেলে শিশু ৩৩০ এবং মেয়ে শিশু ৩২০ জন।যাদের মধ্যে জন্ম নিবন্ধন রয়েছে ৬৪০ জন শিশু ও ১০ জনের নেই।

আমরা চাই এধরণের কাজে সহযোগিতার জন্য সবাই এগিয়ে আসুক।তাহলে আমরা সকল পথশিশুদের জন্য সুন্দর পরিবেশ তৈরি করতে পারব।যদি স্থানীয় সরকার বিভাগ এ বিষয়ে সহযোগিতা করে তাহলে কাজটা আরো সুন্দর ভাবে এগিয়ে নেওয়া যাবে।কেননা দাতা সংস্থাগুলোও বলছে আমরা যেন তাদের দান নির্ভর না হই।”
পরিশেষে সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে ক্যাম্পেইনের ইতি টানেন।উক্ত ক্যাম্পেইনে
কারিতাস রাজশাহী অঞ্চলের আলোকিত শিশু প্রকল্পের কর্মকর্তা কর্মচারীগণসহ বিভিন্ন প্রিন্ট মিডিয়া ও ইলেকট্রনিকস মিডিয়াকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য যে,আলোকিত শিশু প্রকল্প একটি ড্রপ ইন সেন্টার এর পাশাপাশি বহরমপুরে একট এবং মহিষবাথান উত্তর পাড়ায় একটিসহ মোট দুটি উন্মুক্ত স্কুল পরিচালনা করছে। স্কুলে ৬০ জন শিশু সেবা পাচ্ছে। ড্রপ ইন সেন্টারে প্রতিদিন গড়ে ২০/২৫ জন শিশুকে পুষ্টিকর খাবার দেওয়া,নৈতিক শিক্ষা ও প্রাথমিক শিক্ষা দেওয়া হচ্ছে।


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে. সি