ঢাকা ০৬:২৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মাঝ পথেই থেমে গেল এ আর রহমানের কনসার্ট

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:০২:১৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ মে ২০২৩ ১৩৩ বার পড়া হয়েছে

মাঝ পথেই থেমে গেল এ আর রহমানের কনসার্ট

নিউজ ডেস্ক:


ভারতীয় সংগীত তারকা এ আর রহমানের কনসার্ট ছিল পুণেতে। রাত ১০টায় স্টেজে ওঠেন তিনি। সবে ‘ছাইয়াঁ ছাইয়াঁ’ গানটি ধরেছেন। এমন সময় হঠাৎ গান বন্ধ করে দেওয়া হয় অস্কারজয়ী এই সুরকারের।

রোববার এই ঘটনা ঘটেছে পুণেকে এ আর রহমানের এ কনসার্টে।

কিছু বুঝে ওঠার আগেই মঞ্চে উপস্থিত শিল্পীদের বাদ্যযন্ত্র বন্ধের নির্দেশ দেন পুণের এক পুলিশ কর্মকর্তা। মাঝপথে থামিয়ে দেওয়ায় তড়িঘড়ি করে মঞ্চ ছাড়েন এ আর রহমান। ততক্ষণে চিৎকার শুরু করেন বহু দর্শক।

সূত্রের খবর, নির্ধারিত সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরও চলতে থাকে অনুষ্ঠান। সে কারণেই নাকি কনসার্টে পুলিশি হস্তক্ষেপ। এ আর রহমানের এই শোয়ের জন্য রাত ১০টা পর্যন্ত সময় নির্দিষ্ট ছিল। তবে ঘড়ির কাঁটা যে রাত ১০টা পেরিয়ে গেছে তা খেয়াল করেননি শিল্পী। রাত ১০টা ১৫ মিনিট নাগাদ শেষ গানটি ধরেছিলেন তিনি। তাই মঞ্চে উঠে সরাসরি গান বন্ধ করে দেয় পুলিশ। পুণের রাজা বাহাদুর মিল এলাকায় আয়োজিত এ কনসার্টে হাজারেরও বেশি দর্শক উপস্থিত ছিলেন।

এ প্রসঙ্গে পুণে পুলিশের ডিসিপি (জোন ২) এস পাতিল বলেন, এ আর রহমান শেষ গানটি গাইছিলেন। উনি খেয়াল করেননি সময় ১০টা পেরিয়ে গেছে। তাই অনুষ্ঠানস্থলে আমাদের যে পুলিশ কর্মকর্তা ছিলেন, বাধ্য হয়ে স্টেজে উঠে তাকে সুপ্রিমকোর্টের নির্দেশিকার কথা মনে করিয়ে দেন। তখন অবশ্য শিল্পী গান বন্ধ করে দেন।

তবে গান এভাবে মাঝপথে বন্ধ করে দেওয়ার ঘটনা মেনে নিতে পারেননি অনুরাগীরা। নিন্দার ঝড় ওঠে নেটপাড়ায়। এমন এক বিশ্ববন্দিত শিল্পীর সঙ্গে কেন আরও একটু সংবেদনশীল আচরণ করা হলো না, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে।


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে.সি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

মাঝ পথেই থেমে গেল এ আর রহমানের কনসার্ট

আপডেট সময় : ০৪:০২:১৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ মে ২০২৩

নিউজ ডেস্ক:


ভারতীয় সংগীত তারকা এ আর রহমানের কনসার্ট ছিল পুণেতে। রাত ১০টায় স্টেজে ওঠেন তিনি। সবে ‘ছাইয়াঁ ছাইয়াঁ’ গানটি ধরেছেন। এমন সময় হঠাৎ গান বন্ধ করে দেওয়া হয় অস্কারজয়ী এই সুরকারের।

রোববার এই ঘটনা ঘটেছে পুণেকে এ আর রহমানের এ কনসার্টে।

কিছু বুঝে ওঠার আগেই মঞ্চে উপস্থিত শিল্পীদের বাদ্যযন্ত্র বন্ধের নির্দেশ দেন পুণের এক পুলিশ কর্মকর্তা। মাঝপথে থামিয়ে দেওয়ায় তড়িঘড়ি করে মঞ্চ ছাড়েন এ আর রহমান। ততক্ষণে চিৎকার শুরু করেন বহু দর্শক।

সূত্রের খবর, নির্ধারিত সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরও চলতে থাকে অনুষ্ঠান। সে কারণেই নাকি কনসার্টে পুলিশি হস্তক্ষেপ। এ আর রহমানের এই শোয়ের জন্য রাত ১০টা পর্যন্ত সময় নির্দিষ্ট ছিল। তবে ঘড়ির কাঁটা যে রাত ১০টা পেরিয়ে গেছে তা খেয়াল করেননি শিল্পী। রাত ১০টা ১৫ মিনিট নাগাদ শেষ গানটি ধরেছিলেন তিনি। তাই মঞ্চে উঠে সরাসরি গান বন্ধ করে দেয় পুলিশ। পুণের রাজা বাহাদুর মিল এলাকায় আয়োজিত এ কনসার্টে হাজারেরও বেশি দর্শক উপস্থিত ছিলেন।

এ প্রসঙ্গে পুণে পুলিশের ডিসিপি (জোন ২) এস পাতিল বলেন, এ আর রহমান শেষ গানটি গাইছিলেন। উনি খেয়াল করেননি সময় ১০টা পেরিয়ে গেছে। তাই অনুষ্ঠানস্থলে আমাদের যে পুলিশ কর্মকর্তা ছিলেন, বাধ্য হয়ে স্টেজে উঠে তাকে সুপ্রিমকোর্টের নির্দেশিকার কথা মনে করিয়ে দেন। তখন অবশ্য শিল্পী গান বন্ধ করে দেন।

তবে গান এভাবে মাঝপথে বন্ধ করে দেওয়ার ঘটনা মেনে নিতে পারেননি অনুরাগীরা। নিন্দার ঝড় ওঠে নেটপাড়ায়। এমন এক বিশ্ববন্দিত শিল্পীর সঙ্গে কেন আরও একটু সংবেদনশীল আচরণ করা হলো না, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে।


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে.সি