ঢাকা ০৫:৫০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের ধর্ষণ বিরোধী বিক্ষোভ মিছিলে ছাত্রলীগের বাধা

খ্রীষ্টফার জয়
  • আপডেট সময় : ০৫:২৫:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১১৭ বার পড়া হয়েছে

প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের ধর্ষণ বিরোধী বিক্ষোভ মিছিলে ছাত্রলীগের বাধা

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের ধর্ষণ বিরোধী বিক্ষোভ মিছিলে ছাত্রলীগের বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার বেলা ১টায় ক্যম্পাসের পরিবহন মার্কেটের সামনে থেকে ধর্ষণ বিরোধী বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়। মিছিলের পর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ভবনের সামনে সমাবেশে বক্তব্য দেওয়ার আগে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুল্লা-হিল-গালিব ও তার অনুসারীরা বাধা দেয় বলে নাগরিক ছাত্র ঐক্যের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক মেহেদী হাসান মুন্না জানান।

এ সময় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনগুলোর প্রতিনিধিদের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়। ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি রায়হান আলি বলেন, “২০২০ সালে সিলেটের এমসি কলেজে, ২০১৮ সালে নোয়াখালীর সুবর্ণচরে আমরা ধর্ষণের ঘটনা দেখেছি। কিন্তু এগুলোর একটারও বিচার হয় না। ক্ষমতাসীন ছাত্রসংগঠনের নেতাকর্মীরাই এসব কাজে লিপ্ত। এ বিষয়ে প্রতিবাদও করলেই আমাদের বাধা দেওয়া হয়।”

ছাত্র ইউনিয়নের রাবি শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক রাকিব হোসেন বলেন, “ধর্ষণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করছিলাম। এ সময় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বাধা দেয়। আমরা এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।”

মিছিলে বাধা দেওয়ার প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুল্লা-হিল-গালিব বলেন, “কতিপয় ছাত্রসংগঠনের নেতাকর্মীরা আমাদের প্রাণপ্রিয় নেত্রীর নামে কটূক্তি এবং ছাত্রলীগের নামে বিতর্কিত স্লোগান দিচ্ছিলেন।
“জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের যেসব নেতাকর্মীরা ধর্ষণের ঘটনার সঙ্গে জড়িত, তাদের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ ইতোমধ্যেই ব্যবস্থা নিয়েছে; তাদের সংগঠন থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করেছে।”

“বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেওয়া ছাত্র সংগঠনগুলোর আমি অনুরোধ জানিয়েছি এ ক্যাম্পাস আমার, আপনার সবার। ক্যাম্পাসকে স্থিতিশীল রাখতে আমাদের ভূমিকা রাখতে হবে।” যোগ করেন গালিব। ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জান্নাতুল নাইমসহ নাগরিক ছাত্র ঐক্য, বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রী, ছাত্র যুব আন্দোলন, ছাত্র গণমঞ্চ, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন ও সমাজতান্ত্রিকসহ অন্যান্য সংগঠন।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের ধর্ষণ বিরোধী বিক্ষোভ মিছিলে ছাত্রলীগের বাধা

আপডেট সময় : ০৫:২৫:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের ধর্ষণ বিরোধী বিক্ষোভ মিছিলে ছাত্রলীগের বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার বেলা ১টায় ক্যম্পাসের পরিবহন মার্কেটের সামনে থেকে ধর্ষণ বিরোধী বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়। মিছিলের পর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ভবনের সামনে সমাবেশে বক্তব্য দেওয়ার আগে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুল্লা-হিল-গালিব ও তার অনুসারীরা বাধা দেয় বলে নাগরিক ছাত্র ঐক্যের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক মেহেদী হাসান মুন্না জানান।

এ সময় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনগুলোর প্রতিনিধিদের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়। ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি রায়হান আলি বলেন, “২০২০ সালে সিলেটের এমসি কলেজে, ২০১৮ সালে নোয়াখালীর সুবর্ণচরে আমরা ধর্ষণের ঘটনা দেখেছি। কিন্তু এগুলোর একটারও বিচার হয় না। ক্ষমতাসীন ছাত্রসংগঠনের নেতাকর্মীরাই এসব কাজে লিপ্ত। এ বিষয়ে প্রতিবাদও করলেই আমাদের বাধা দেওয়া হয়।”

ছাত্র ইউনিয়নের রাবি শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক রাকিব হোসেন বলেন, “ধর্ষণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করছিলাম। এ সময় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বাধা দেয়। আমরা এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।”

মিছিলে বাধা দেওয়ার প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুল্লা-হিল-গালিব বলেন, “কতিপয় ছাত্রসংগঠনের নেতাকর্মীরা আমাদের প্রাণপ্রিয় নেত্রীর নামে কটূক্তি এবং ছাত্রলীগের নামে বিতর্কিত স্লোগান দিচ্ছিলেন।
“জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের যেসব নেতাকর্মীরা ধর্ষণের ঘটনার সঙ্গে জড়িত, তাদের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ ইতোমধ্যেই ব্যবস্থা নিয়েছে; তাদের সংগঠন থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করেছে।”

“বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেওয়া ছাত্র সংগঠনগুলোর আমি অনুরোধ জানিয়েছি এ ক্যাম্পাস আমার, আপনার সবার। ক্যাম্পাসকে স্থিতিশীল রাখতে আমাদের ভূমিকা রাখতে হবে।” যোগ করেন গালিব। ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জান্নাতুল নাইমসহ নাগরিক ছাত্র ঐক্য, বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রী, ছাত্র যুব আন্দোলন, ছাত্র গণমঞ্চ, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন ও সমাজতান্ত্রিকসহ অন্যান্য সংগঠন।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি