ঢাকা ০৪:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মধ্যরাতে রাবিতে ফের উত্তেজনা, অস্ত্রের মহড়া

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:২৫:৫১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ মে ২০২৪ ৪২ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ছাত্রলীগের দু’পক্ষের মধ্যে ফের উত্তেজনা দেখা গেছে। নেতাকর্মীরা রামদা ও রডসহ দেশীয় অস্ত্রের মহড়া দেন। সোমবার মধ্যরাতে শহিদ সোহরাওয়ার্দী ও মাদার বখস হলের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক বলেন, যাতে কোন ঝামেলা না হয়। সেজন্য পুলিশ প্রশাসনসহ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের রাখার চেষ্টা করছি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সোমবার রাত ১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক নিয়াজ মোর্শেদ নেতাকর্মী নিয়ে শহিদ সোহরাওয়ার্দী হলে প্রবেশ করেন। পথে হল ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত নেতা আতিকুর রহমানের সঙ্গে দেখা হয়।
আতিকুরের অভিযোগ, নিয়াজ মোর্শেদ বহিরাগতদের নিয়ে হলে প্রবেশ করেন এবং আমাকে হত্যার হুমকি দেন। হলে হাত-পা ভেঙে ফেলতে চান। তখন আমি হলের বাইরে আসি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দেড়টা থেকে মাদার বখস হলের সামনে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জড় হতে থাকেন। তারা রড, লাঠিসোঠা ও রামদাসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মহড়া দেন। রাত ৩টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর ঘটনাস্থলে আসেন।

নগরীর মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোবারক পারভেজ বলেন, প্রশাসনের নির্দেশনা অনুসারে কাজ করছি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করছি।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

মধ্যরাতে রাবিতে ফের উত্তেজনা, অস্ত্রের মহড়া

আপডেট সময় : ০৫:২৫:৫১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ মে ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক:


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ছাত্রলীগের দু’পক্ষের মধ্যে ফের উত্তেজনা দেখা গেছে। নেতাকর্মীরা রামদা ও রডসহ দেশীয় অস্ত্রের মহড়া দেন। সোমবার মধ্যরাতে শহিদ সোহরাওয়ার্দী ও মাদার বখস হলের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক বলেন, যাতে কোন ঝামেলা না হয়। সেজন্য পুলিশ প্রশাসনসহ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের রাখার চেষ্টা করছি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সোমবার রাত ১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক নিয়াজ মোর্শেদ নেতাকর্মী নিয়ে শহিদ সোহরাওয়ার্দী হলে প্রবেশ করেন। পথে হল ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত নেতা আতিকুর রহমানের সঙ্গে দেখা হয়।
আতিকুরের অভিযোগ, নিয়াজ মোর্শেদ বহিরাগতদের নিয়ে হলে প্রবেশ করেন এবং আমাকে হত্যার হুমকি দেন। হলে হাত-পা ভেঙে ফেলতে চান। তখন আমি হলের বাইরে আসি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দেড়টা থেকে মাদার বখস হলের সামনে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জড় হতে থাকেন। তারা রড, লাঠিসোঠা ও রামদাসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মহড়া দেন। রাত ৩টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর ঘটনাস্থলে আসেন।

নগরীর মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোবারক পারভেজ বলেন, প্রশাসনের নির্দেশনা অনুসারে কাজ করছি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করছি।


প্রসঙ্গনিউজ২৪/জে.সি