ঢাকা ০৫:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দেশ নেত্রীর উন্নয়নের বার্তা পৌচ্ছে দিতে আসাদের ব্যতিক্রমি শোভাযাত্রা

খ্রীষ্টফার জয়
  • আপডেট সময় : ০৪:২৩:৪৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১ অক্টোবর ২০২৩ ৪০ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক:


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন বার্তা ঘরে ঘরে পৌঁছে দেয়ার লক্ষে রাজশাহীর পবায় মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা করেছেন রাজশাহী জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ।

শনিবার ৩০ সেপ্টেম্বর নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা মোড় থেকে শুরু করে পুরো পবা উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্টে মোটরসাইকেল ও পিকাপ ভ্যান যোগে শহর ও উপজেলা প্রদক্ষিণ করেন একই সাথে আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের বিষয়টি জনমত নির্বিশেষে প্রচাররণা ও মাইকিং করেন । সেই সময় দলীয় নেত্রীবৃন্দ স্লোগানে রাজপথ ভরিয়ে তোলেন।

পথসভায় আসাদ বলেন, দেশের প্রতিটি প্রান্তে জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন দৃশ্যমান। দলমত নির্বিশেষে প্রতিটি মানুষ এই উন্নয়নের সুবিধা ভোগ করছে। অথচ একটি মহল সুবিধা ভোগ করার পরও উন্নয়ন মানতে চাননা। তারা সমালোচনায় ব্যস্ত। মিথ্যাচারে ব্যস্ত। এই মিথ্যাচারের জবাব দিতে হবে। প্রকৃত উন্নয়ন চিত্র মানুষের কাছে তুলে ধরতে হবে। এই দায়িত্ব প্রতিটি আওয়ামীলীগ কর্মীর।

নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থেকে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রায় বিপুল সংখ্যক মোটরসাইকেল ও পিকাপ ভ্যান নিয়ে প্রায় এক হাজারের বেশি আরোহী শোভাযাত্রায় অংশ নেয়। শোভাযাত্রা থেকে বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নচিত্র প্রচার করা হয়। প্রতিটি ট্রাকের সামনে ব্যানারে লিখা ছিলো- রাজনৈতিক দার্শনিক, রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা’র উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রা এগিয়ে নেওয়ার দীপ্ত শপথে-মটরসাইকেল শোভাযাত্রা। আয়োজনে: রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ।

নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা মোড়ে হয়ে দামকুড়া, শিতলাই, নওহাটা, পারিলা, হাট গোদাগাড়ী, নওহাটাসহ পবা উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে খড়খড়িতে গিয়ে শেষ হয়। পবা এলাকায় সাম্প্রতিক সময়ে সবথেকে বড় এই শোভাযাত্রায় অংশগ্রহনকারীদের শুভেচ্ছা জানান গ্রামের রাস্তার পাশে দাঁড়ানো শতশত সাধারণ মানুষ।

দীর্ঘ এই শোভাযাত্রাটি খড়খড়িতে পৌঁছলে আসাদুজ্জামান আসাদ ট্রাকের উপরে দাঁড়িয়ে বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, নৌকা হলো উন্নয়নের প্রতীক। এই নৌকা যাতে আবারো বিজয় লাভ করতে পারে সে জন্য উন্নয়নের তথ্য প্রতিটি মানুষের কাছে পৌছে দেয়া আমাদের কর্তব্য। জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতিটি কর্মীর দায়িত্ব হলো দুরন্ত গতিতে এগিয়ে যাওয়া বাংলাদেশের উন্নয়নের খবর মানুষকে জানানো । এর মাধ্যমেই সম্ভব অপপ্রচারের জবাব দেয়া। মিথ্যাচারের জবাব দেয়া।

এই পথসভা ও শোভাযাত্রায় উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ফারুক হোসেন ডাবলু, জেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রিয়া বিষয়ক সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ, সদস্য শরিফুল ইসলাম, পবা উপজেলার আওয়ামী লীগের নেতা বাদল হোসেন, হুজরীপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোস্তফা আলী, মানিক হোসেন, মোহনপুর উপজেলার আওয়ামী লীগ নেতা এনামুল হক, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুব হাসান রাসেল, আফজাল হোসেন বকুল, হোসেন আলী প্রমুখ।


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে.সি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

দেশ নেত্রীর উন্নয়নের বার্তা পৌচ্ছে দিতে আসাদের ব্যতিক্রমি শোভাযাত্রা

আপডেট সময় : ০৪:২৩:৪৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১ অক্টোবর ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক:


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন বার্তা ঘরে ঘরে পৌঁছে দেয়ার লক্ষে রাজশাহীর পবায় মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা করেছেন রাজশাহী জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ।

শনিবার ৩০ সেপ্টেম্বর নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা মোড় থেকে শুরু করে পুরো পবা উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্টে মোটরসাইকেল ও পিকাপ ভ্যান যোগে শহর ও উপজেলা প্রদক্ষিণ করেন একই সাথে আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের বিষয়টি জনমত নির্বিশেষে প্রচাররণা ও মাইকিং করেন । সেই সময় দলীয় নেত্রীবৃন্দ স্লোগানে রাজপথ ভরিয়ে তোলেন।

পথসভায় আসাদ বলেন, দেশের প্রতিটি প্রান্তে জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন দৃশ্যমান। দলমত নির্বিশেষে প্রতিটি মানুষ এই উন্নয়নের সুবিধা ভোগ করছে। অথচ একটি মহল সুবিধা ভোগ করার পরও উন্নয়ন মানতে চাননা। তারা সমালোচনায় ব্যস্ত। মিথ্যাচারে ব্যস্ত। এই মিথ্যাচারের জবাব দিতে হবে। প্রকৃত উন্নয়ন চিত্র মানুষের কাছে তুলে ধরতে হবে। এই দায়িত্ব প্রতিটি আওয়ামীলীগ কর্মীর।

নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থেকে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রায় বিপুল সংখ্যক মোটরসাইকেল ও পিকাপ ভ্যান নিয়ে প্রায় এক হাজারের বেশি আরোহী শোভাযাত্রায় অংশ নেয়। শোভাযাত্রা থেকে বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নচিত্র প্রচার করা হয়। প্রতিটি ট্রাকের সামনে ব্যানারে লিখা ছিলো- রাজনৈতিক দার্শনিক, রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা’র উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রা এগিয়ে নেওয়ার দীপ্ত শপথে-মটরসাইকেল শোভাযাত্রা। আয়োজনে: রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ।

নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা মোড়ে হয়ে দামকুড়া, শিতলাই, নওহাটা, পারিলা, হাট গোদাগাড়ী, নওহাটাসহ পবা উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে খড়খড়িতে গিয়ে শেষ হয়। পবা এলাকায় সাম্প্রতিক সময়ে সবথেকে বড় এই শোভাযাত্রায় অংশগ্রহনকারীদের শুভেচ্ছা জানান গ্রামের রাস্তার পাশে দাঁড়ানো শতশত সাধারণ মানুষ।

দীর্ঘ এই শোভাযাত্রাটি খড়খড়িতে পৌঁছলে আসাদুজ্জামান আসাদ ট্রাকের উপরে দাঁড়িয়ে বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, নৌকা হলো উন্নয়নের প্রতীক। এই নৌকা যাতে আবারো বিজয় লাভ করতে পারে সে জন্য উন্নয়নের তথ্য প্রতিটি মানুষের কাছে পৌছে দেয়া আমাদের কর্তব্য। জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতিটি কর্মীর দায়িত্ব হলো দুরন্ত গতিতে এগিয়ে যাওয়া বাংলাদেশের উন্নয়নের খবর মানুষকে জানানো । এর মাধ্যমেই সম্ভব অপপ্রচারের জবাব দেয়া। মিথ্যাচারের জবাব দেয়া।

এই পথসভা ও শোভাযাত্রায় উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ফারুক হোসেন ডাবলু, জেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রিয়া বিষয়ক সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ, সদস্য শরিফুল ইসলাম, পবা উপজেলার আওয়ামী লীগের নেতা বাদল হোসেন, হুজরীপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোস্তফা আলী, মানিক হোসেন, মোহনপুর উপজেলার আওয়ামী লীগ নেতা এনামুল হক, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুব হাসান রাসেল, আফজাল হোসেন বকুল, হোসেন আলী প্রমুখ।


প্রসঙ্গনিউজবিডি/জে.সি