বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:৩০ অপরাহ্ন

বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিকল্প নেই, দোলন

রিপোর্টারের নাম
  • সময় : বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২২
  • ১৪ দেখেছেন

নিউজ ডেস্ক


বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা আরও এগিয়ে নিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন ফরিদপুর-১ আসনের নেতা আরিফুর রহমান দোলন।

তিনি বলেছেন, আওয়ামী লীগ মহান মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী দল। বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রগতিতেও নেতৃত্ব দেওয়া দল। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা আমাদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। চারবারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এবারও আমাদের নির্বাচিত করতে হবে।

নিজ এলাকা আলফাডাঙ্গায় বুধবার সকাল ১১টায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও সর্বস্তরের জনগণের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন আরিফুর রহমান দোলন। পরে তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে উপস্থিত হাজারো নেতাকর্মীর উদ্দেশ্যে বক্তব্য দেন।
আলফাডাঙ্গা, বোয়ালমারী ও মধুখালী নিয়ে গঠিত ফরিদপুর-১ আসনে বিপুল জনপ্রিয় আরিফুর রহমান দোলন। মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তিকে ইস্পাত কঠিন ঐক্যবদ্ধ করে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে তিনি বলেন, ‘সেই জন্য মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষের শক্তিকে আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশ করিয়ে দলকে বিভক্ত করতে দেওয়া যাবে না।’

‘মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষের শক্তিকে যারা আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশ ঘটাবে আমরা যারা মুজিব আদর্শের সৈনিক, শেখ হাসিনার সৈনিক, আমরা তার প্রতিবাদ করব, প্রতিরোধ করব। কারণ ওই বিএনপি জামায়াত চক্র সোজা পথে না পেরে বাঁকা পথে আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশ করে আমাদের ঐক্য আর শক্তিকে বিভক্ত করতে চেষ্টা করছে।’

দোলন বলেন, ‘আমাদের দলের প্রিয় সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের যে কথা বলেছেন। খেলা হবে। কি খেলা? আওয়ামী লীগে যারা বিএনপি-জামায়াত স্বাধীনতা বিরোধী শক্তির অনুপ্রবেশ ঘটাবে তাদের বিরুদ্ধে খেলা হবে। যারা পদ বাণিজ্য করে, সুপারিশ বাণিজ্য করে তাদের বিরুদ্ধে খেলা হবে।’

‘আপনারা যারা মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি, আপনারা যারা মুজিব আদর্শের সৈনিক আপনারা এই আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের সুফলভোগী। আপনারা বর্তমান সরকারের অনেক উন্নয়ন নিজ চোখে দেখছেন।’

উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শেখ দেলোয়ার হোসেন, কেন্দ্রীয় কৃষক লীগ নেতা শেখ শওকত হোসেন, বুড়াইচ ইউনিয়নের সানেক চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব পান্নু, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য মো. তারিকুল ইসলাম, পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি কামরুজ্জামান কদর, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তৌকির আহমেদ ডালিম, উপজেলা পৌর কৃষক লীগের সদস্য সচিব রফিকুল ইসলাম রাজিব, পৌর কাউন্সিলর হারুন অর রশীদ, মানুন অর রশীদ, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি তন্ময় উদ্দৌলা, ঢাকা মাহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক আশিকুর রহমানসহ উপজেলার আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের প্রায় পাঁচ সহস্রাধিক নেতাকর্মী এসময় উপস্থিত ছিলেন।

আলফাডাঙ্গায় উন্নয়নের কয়েকটা উদাহরণ তুলে ধরে আরিফুর রহমান দোলন বলেন, ‘আজকে আলফাডাঙ্গায় যখন ঢুকলাম গার্লস স্কুলের পাশে একটি নতুন ব্রিজ। যখন এই ব্রিজটা এখানে স্যাংসন হয়, সরকারের ওপর মহলে যোগাযোগ করে এর ব্যবস্থা করেছিলাম। আলফাডাঙ্গায় আজ ৫০০ আসনবিশিষ্ট অডিটোরিয়াম হয়েছে।’

‘আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আছে বলে আজ আলফাডাঙ্গার প্রত্যেকটা রাস্তাঘাট পাকা। আজ আলফাডাঙ্গার মতো উপজেলায় কামারগ্রামে একটি টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার (টিটিসি) হয়েছে।’

মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তিকে সবসময় ঐক্যবদ্ধ থাকতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার তাগিদও মনে করিয়ে দেন দোলন। বলেন, ‘আমাদের প্রাণপ্রিয় নেত্রী কিন্তু বারবার বলছেন। তাই আপনাদের বলবো, আপনারা কোনো বিশৃঙ্খলা করবেন না, বিভক্তি করবেন না।’
‘আগামীতে ঐক্যবদ্ধভাবে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি একযোগে কাজ করে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বকে আরো সুগঠিত, সংগঠিত শক্তিশালী করে আমরা শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করব। ইনশাআল্লাহ।’

দোলন বলেন, ‘ফরিদপুর-১ আসন নিয়ে আমাদের প্রিয় নেত্রী যে সিদ্ধান্ত দেবেন আমরা তা মেনে আগামীতেও নৌকা মার্কার প্রার্থীকে জাতীয় সংসদে পাঠাবো। তবে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে কেউ যদি সুপারিশ বাণিজ্য, পদ বাণিজ্যের মাধ্যমে আওয়ামী লীগের ঐতিহ্যকে কলঙ্কিত করার চেষ্টা করে আপনারা বিবেক ও আদর্শ দিয়ে ওই কুচক্রী মহলকে রুখে দেবেন। আমি সব সময় আপনাদের সঙ্গে থাকবো।’

আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে কোনো চক্রান্ত সফল হতে দেবেন না হুঁশিয়ার করে দোলন বলেন, ‘অতীতেও আমরা কোনো চক্রান্ত সফল হতে দেইনি। আবারও হুঁশিয়ার করতে চাই, আওয়ামী লীগের ঐক্য যারা নষ্ট করার চেষ্টা করবে, তেমন কারো চোখ রাঙানিতে আরিফুর রহমান দোলন ভয় খায় না।’

‘কুচক্রী মহলের উদ্দেশ্যে বলতে চাই পিঠে চুরি মারার চেষ্টা করে কোনো লাভ হবে না। আমাদের চোখ চতুর্দিকে আছে। সামনে আছে পিছনে আছে ডাইনে আছে বামে আছে। আমাদের দিকে চোখ রাঙালে আমরাও জানি কি ভাষায় কথা বলতে হবে।’

আলফাডাঙ্গার মাটি মুজিব আদর্শের ঘাঁটি উল্লেখ করে এই তরুণ রাজনীতিক আরও বলেন, ‘এই ঘাঁটিকে যারা নষ্ট করার চেষ্টা করবে তারা কিন্তু সফল হবে না। শেখ হাসিনার কাছে সকল তথ্য আছে। কালো টাকা দিয়ে দলের নেতাকর্মীদের কেনা যাবে না। আদর্শ কখনো বিক্রি হয় না।’

দোলন আরও বলেন, ‘যারা আজকে আদর্শ বেচাকেনা করছেন তাদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই, নেত্রী আপনাদের সকল কর্মকাণ্ড প্রত্যক্ষ করছেন এবং সেভাবেই মূল্যায়ন হবে। এই বার্তা নেত্রীর পক্ষ থেকে দলের পক্ষ থেকে দেওয়া আছে। দলকে যারা খাটো করে, ভাবমূর্তি নষ্ট করে, আগামীতে নেতৃত্ব বাছাইয়ের সময় তাদের বিষয়গুলো দলের নেত্রী অবশ্যই দেখবেন।’


প্রসঙ্গনিউজ/জে.সি

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার.....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর.....