মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৩:৩২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
প্রাক্তন ছাত্রীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ উঠেছে সহকারী প্রক্টরের নেইমারকে ছাড়াই জয় ব্রাজিলের ‘বিএনপি উচ্ছৃঙ্খলতা করলে বরদাশত করা হবে না’- রাসিক মেয়র ছোট্ট স্বপ্নের গল্পপাঠের আসর ১১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতির পিতার মৃত্যুতে রাসিক মেয়রের শোক ঢাকা থেকে নৌকা নিয়ে বাঘায় পৌঁছে ফুলে ফুলে সিক্ত হলেন-পিন্টু গোদাগাড়ীর সুলতানগঞ্জ পোর্টে কাস্টমস কার্যক্রম চালুকরণ বিষয়ে মতবিনিময় রাজশাহী মহানগর ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদকের দাদীর মৃত্যুতে শোক শিবগঞ্জে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে শীতকালীন শাক-সবজির বীজ বিতরণ রাসিক মেয়রের সাথে প্যারা কমান্ডো ব্রিগেড কমান্ডারের সৌজন্য সাক্ষাৎ

রাজশাহীতে ইয়ুথদের জলবায়ু সুবিচার ও মানবাধিকার বিষয়ক পরামর্শ সভা

রিপোর্টারের নাম
  • সময় : সোমবার, ২১ নভেম্বর, ২০২২
  • ৫৫ দেখেছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক: তীব্র দাপদহ, খরা এবং জলবায়ু পরির্বনের কারণে বরেন্দ্র অঞ্চলে নতুন নতুন কিছু সংকট দিনে দিনে বেড়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে জলবায়ু পরিবর্তন খরার কারণে পানি সংকট আরো তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে। পানিকে কেন্দ্র করে বরেন্দ্র অঞ্চলের সমাজ ব্যবস্থায় সহিংসতা আগের তুলনায় বৃদ্ধি পেয়েছে।

সোমবার (২১ নভেম্বর) সকাল ১১টায় রাজশাহী মহানগরীর গনক পাড়া মোড়ে একটি রেস্তোরাঁর সেমিনার হলে ৩০জন ইয়ুথদের নিয়ে জলবায়ু সুবিচার ও মানবাধিকার বিষয়ক পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

পরামর্শ সভা পরিচালনা করেন ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস এর এডভোকেসি এন্ড পার্টনারশিপ সমন্বয়কারী জিম্রান। তিনি বলেন, বৈশ্বিক তাপমাত্রা দিন দিন বাড়ছে। গত ১শ বছর আগে যে তাপমাত্রা ছিল তা এখন নেই। এই একবিংশ শতাব্দীতে পৃথিবীর তাপমাত্রা ৪-৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস বৃদ্ধি পাবে। তখন আমাদের অবস্থা কি হবে। আমরা কি চিন্তা করতে পারি? ভালো পরিবেশে থাকা প্রতিটি মানুষের অধিকার। আমরাই পারি আমাদের পরিবেশকে ঠিক রাখতে। এতে যুবসমাজ বড় ভূমিকা পালন করতে পারে। তাই আমাদের সচেতন থাকতে হবে। পরিবেশ নিয়ে ভাবতে হবে।

অনুষ্ঠানে জলবায়ুর বিভিন্ন বিষয় যা মানুষের দৈনন্দিন জীবনে প্রভাব বিস্তার করে সেই বিষয় নিয়ে মতবিনিময় হয় । সেই সাথে ইয়ুথদের প্রত্যেকেই নিজের নিজের স্বাধীন চিন্তা ও পরিকল্পনা সহ এলাকায় নানান সমস্যার কথা তুলে ধরেন।

ইয়ুথদের পক্ষে আশা মনি বলেন, ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করলেই আবহাওয়া ও জলবায়ুকে রক্ষা করা সম্ভব। আমাদের নিজেদের সচেতন হতে হবে এবং অন্যকে সচেতন করতে হবে। একদিনে এ পরিবর্তন সম্ভব নয়। আমরা পরিবেশ নিয়ে সচেতন হলে আমাদের পরবর্তী প্রজন্ম একটি ভালো পরিবেশ পাবে। আমরা যারা জলবায়ু পরিবর্তনে বিপদগ্রস্থ হচ্ছি সেটার জন্য আমরা দায়ী নয়। আমরা আরেকজনের অপরাধের শাস্তি পাচ্ছি। এটি পৃথিবীর সবচেয়ে দুঃখজনক ব্যাপার। তাই আমাদের সকলকে মিলেমিশে পরিবেশের জন্য কাজ করতে হবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার.....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর.....