শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:৪৮ পূর্বাহ্ন

অসম্পূর্ণ জরিপেই প্রকল্পের কাজ শেষ করতে চাইছে বিবিএস

রিপোর্টারের নাম
  • সময় : সোমবার, ২১ নভেম্বর, ২০২২
  • ১২ দেখেছেন

প্রসঙ্গ ডেস্ক: প্রায় ১০ বছর আগে শুরু হওয়া ‘ন্যাশনাল হাউজহোল্ড ডাটাবেইজ (এনএইচডি)’ প্রকল্পটির জরিপের কাজ অসম্পূর্ণ রেখেই প্রকল্প শেষ করতে চাইছে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস)। জরিপের কাজ অসম্পূর্ণ রেখে প্রকল্পটি শেষ করতে চাওয়ায় বিবিএসকে ঠেকাতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে এই প্রকল্পের আউটসোর্সিংয়ের কর্মচারীরা।

সোমবার (২১ নভেম্বর) দ্বিতীয় দিনের মতো অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন ভুক্তভোগীরা। এ পর্যন্ত প্রকল্পের মোট বরাদ্দ ৭২৭ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারি তহবিল থেকে ৪০ কোটি ৫৪ লাখ ৫২ হাজার টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য ৬৮৬ কোটি ৮০ লাখ ৪৮ হাজার টাকা। অক্টোবর ২০২২ সাল পর্যন্ত সরকারি তহবিল থেকে প্রকল্পের অনুকূলে মোট ব্যয় হয়েছে ২৯ কোটি ২৯ লাখ ৬৬ হাজার টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য ৬১১ কোটি ৩৫ লাখ ১২ হাজার টাকা। ছাড়কৃত প্রকল্প সাহায্য ৫০ কোটি ৯৮ লাখ টাকা অবশিষ্ট রয়েছে।

বিবিএস সূত্র জানায়, বিশ্ব ব্যাংকের আর্থিক ও কারিগরি সহযোগিতায় জুলাই ২০১৩ থেকে ডিসেম্বর ২০২২ মেয়াদে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হচ্ছে। এ প্রকল্পের মাধ্যমে প্রস্তুত করা ডাটাবেজ থেকে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি বাস্তবায়নকারী বিভিন্ন সংস্থাকে প্রয়োজনীয় তথ্য সরবরাহ করার কথা ছিল বিবিএসের।

সংশ্লিষ্টরা জানান, এই প্রকল্পের তথ্য জেরক্স ইন্ডিয়া লিমিটেড আইসিআর মেশিনের মাধ্যমে স্ক্যান করা হয়। স্ক্যানের ত্রুটির কারণে ডাটা সফটওয়ারে ডাটাবেজ আকারে প্রস্তুত করা সম্ভব হয়নি। বর্তমানে প্রকল্পে নিয়োগ করা ২৬৫ জন ডাটা এন্ট্রি অপারেটরদের মাধ্যমে ২৪ জুলাই ২০২২ থেকে ত্রুটিপূর্ণ ডাটা সংশোধনের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। ইতোমধ্যে ১৪টি জেলার মোট ৬৬ লাখ খানার ডাটা সংশোধনের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। প্রকল্পের মেয়াদ ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হলে পরবর্তী সময়ে বাকি ৫০টি জেলার ৩ কোটি ৪ লাখ খানার ডাটা সংশোধনের কাজ অসম্পূর্ণ থাকবে। প্রকল্পের মেয়াদ বৃদ্ধি করে সঠিকভাবে ডাটা প্রস্তুতের আবেদন জানিয়ে ২৬৫ জন ডাটা এন্ট্রি অপারেটর আগারগাঁওয়ের বিবিএস চত্বরে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন।

অবস্থান কর্মসূচি পালন করা ডাটা এন্ট্রি অপারেটর মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, প্রকল্পটির কাজ অসমাপ্ত রেখে শেষ করতে চাইছে বিবিএস। ডিসেম্বরে প্রকল্পটির মেয়াদ সমাপ্ত করা হলে সরকারের ৭২৭ কোটি ৩৫ লাখ টাকা জনগণের কোনো উপকারেই আসবে না। আমরা ২৬৫ জন ডাটা এন্ট্রি অপারেটর দীর্ঘ ছয় বছর ধরে ওই প্রকল্পে কর্মরত আছি। তাই আমাদের প্রাণের দাবি, ত্রুটিপূর্ণ অবশিষ্ট ৫০টি জেলার ৩ কোটি ৪ লাখ খানার তথ্য আমরা সংশোধন করতে চাই। বর্তমান সরকারকে উন্নত দেশের ন্যায় সব খানার আর্থসামাজিক তথ্য সম্বলিত ডাটাবেজ উপহার দিতে চাই।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার.....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর.....