মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৫:০১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
প্রাক্তন ছাত্রীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ উঠেছে সহকারী প্রক্টরের নেইমারকে ছাড়াই জয় ব্রাজিলের ‘বিএনপি উচ্ছৃঙ্খলতা করলে বরদাশত করা হবে না’- রাসিক মেয়র ছোট্ট স্বপ্নের গল্পপাঠের আসর ১১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতির পিতার মৃত্যুতে রাসিক মেয়রের শোক ঢাকা থেকে নৌকা নিয়ে বাঘায় পৌঁছে ফুলে ফুলে সিক্ত হলেন-পিন্টু গোদাগাড়ীর সুলতানগঞ্জ পোর্টে কাস্টমস কার্যক্রম চালুকরণ বিষয়ে মতবিনিময় রাজশাহী মহানগর ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদকের দাদীর মৃত্যুতে শোক শিবগঞ্জে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে শীতকালীন শাক-সবজির বীজ বিতরণ রাসিক মেয়রের সাথে প্যারা কমান্ডো ব্রিগেড কমান্ডারের সৌজন্য সাক্ষাৎ

বাঘায় ৪ টি ককটেল উদ্ধার, বিএনপি নেতা-কর্মীদের নামে মামলা

রিপোর্টারের নাম
  • সময় : রবিবার, ২০ নভেম্বর, ২০২২
  • ৯ দেখেছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঘা: রাজশাহীর বাঘায় চারটি ককটেল ও শতাধিক বাঁশের লাঠি উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার ১৯ নভেম্বর রাত ১০ টার দিকে উপজেলার পাকুড়িয়া ইউনিয়নের কেশবপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ থেকে এই ককটেল ও বাঁশের লাঠি উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় বিএনপির ১৫০ জন নেতাকর্মীর নামে নাশকতার মামলা দায়ের করা হয়েছে। বাঘা থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) শাহরিয়ার নাসিম বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। মামলায় প্রধান আসামী করা হয়েছে পাকুড়িয়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি দোস্তল হোসেনকে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, শনিবার ১৯ নভেম্বর রাত ১০ টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বাঘা থানার পুলিশ জানতে পারেন উপজেলার পাকুড়িয়া ইউনিয়নের কেশবপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বিএনপির কিছু নেতাকর্মী সংঘবদ্ধ হয়ে নাশকতা করার পরিকল্পনা করছে।এমন সংবাদের ভিত্তিতে বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে সেখানে উপস্থিত হন। এ সময় পুলিশের উপস্থিত টের পেয়ে বিএনপি নেতাকর্মীরা সংঘবদ্ধ হয়ে পুলিশের ওপর ইট পাটকেল ও ককটেল মারতে শুরু করেন। তবে কিছুক্ষনের মধ্যে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পালটা ধাওয়া করলে বিএনপির নেতাকর্মীরা পালিয়ে যায়। এরপর পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৪টি তাজা ককটেল ও শতাধিক বাঁশের লাঠি উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাঘা উপজেলা বিএনপির আহবায়ক ও সাবেক পাকুড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান ফকরুল হাসান বাবলু বলেন, বিষয়টি পুলিশের সাজানো নাটোক। আগামি তিন ডিসেম্বর রাজশাহীতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি দল বিএনপির বিভাগীয় মহাসমাবেশ। এই সমাবেশ সফল করার লক্ষ নিয়ে সন্ধ্যায় আমার বাড়িতে উপজেলার ৭ টি ইউনিয়ন এবং দু’টি পৌর সভার সভাপতি-সম্পাদকদের নিয়ে সভা করেছি। অথচ পুলিশ রাত ১০ টার সময় আমার এলাকায় এসে নিজেরা ককটেল ফাটিয়ে বিএনপি’র নেতা-কর্মীর নামে নাশকতার মিথ্যা অভিযোগ এনে হয়রানি মূলক মামলা দায়ের করেছে।

এ বিষয়ে বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন জানান, বিএনপির লোকজন নাশকতার পরিকল্পনা করছিলো। এমন সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে তারা আমাদের ওপর ইট পাটকেল ও ককটেল মারতে শুরু করেন। তাৎক্ষনাত ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পাল্টা ধাওয়া করলে তারা পালিয়ে যায়। এ সময় কেশবপুর স্কুল মাঠ থেকে ৪ টি তাজা ককটেল ও শতাধিক বাশের লাঠি উদ্ধার করা হয়। তিনি বলেন, এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার.....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর.....