শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৬:০৪ অপরাহ্ন

আমাদের মূল এজেন্ডা মানুষের জানমালের নিরাপত্তা দেওয়া: কাদের

রিপোর্টারের নাম
  • সময় : বৃহস্পতিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০২২
  • ১১ দেখেছেন

প্রসঙ্গ ডেস্ক: আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সংবাদপত্রের সম্পাদক ও সিনিয়র সাংবাদিকদের সাদাকে সাদা এবং কালোকে কালো বলার আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, আমাদের মূল এজেন্ডা এদেশের মানুষের জানমালের নিরাপত্তা দেওয়া। আমরা সেদিকে এগিয়ে যাচ্ছি। আপনারা আমাদের সহায়তা করুন। আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রে বিশ্বাসী, আওয়ামী লীগ গণতন্ত্র চর্চা করে। বুধবার (১৬ নভেম্বর) ঢাকা ক্লাব স্যামসন এইচ চৌধুরী হলে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় আয়োজিত বিশিষ্ট গণমাধ্যমব্যক্তিত্বদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, পঁচাত্তরের পর দেশে রাজনৈতিক দেওয়াল তৈরি করা হয়েছিল। ইনডেমনিটি জারি করে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বন্ধ করা হয়েছিল। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ভুলুণ্ঠিত করা হয়েছিল। সাত মার্চের ভাষণ নিষিদ্ধ করা হয়। আমরা জাতীয় দিবসে যেতে পারিনি। বেগম খালেদা জিয়ার শাসনামলে বাংলাভাই সৃষ্টি করা হয়েছিল। সারাদেশে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের হত্যা করা হয়।

বিএনপিকে উদ্দেশ্যে করে তিনি বলেন, যাদের ঘরে গণতন্ত্র নেই তারা দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করবে কীভাবে।

তিনি বলেন, বিএনপি কেন তাদের গঠনতন্ত্রের সাত-ধারা তুলে দিয়েছিল। সাত-ধারায় কোনো দুনীতিবাজ, সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তি দলের নেতৃত্বে থাকতে পারবে না। বিএনপি সেটি তুলে দিয়ে দুর্নীতিবাজ সাজাপ্রাপ্তদের দলে রেখেছে। তিনি আরও বলেন, এই বিএনপি ক্ষমতায় থাকতে কীভাবে মানুষ হত্যা করেছিল তা সবার মনে আছে। তারা ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা করে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে চেয়েছিল। এখন তারা মানবতার কথা বলে।

কাদের বলেন, আমাদের ভুল আছে, তারপরও আমরা দেশের জন্য কাজ করছি। রাজনীতিতে বিরোধিতা থাকবে কিন্তু আমরা হত্যার রাজনীতি করি না। বিএনপির সঙ্গে পাল্টা কর্মসূচি দিচ্ছি না। দলের সম্মেলন সামনে রেখে কাজ করছি।

অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, আওয়ামী লীগ উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মোজাফফর হোসেন পল্টু, প্রেসিডিয়াম সদস্য কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, শাজাহান খান, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, এস এম কামাল, উপপ্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার.....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর.....