মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৩:৩৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
প্রাক্তন ছাত্রীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ উঠেছে সহকারী প্রক্টরের নেইমারকে ছাড়াই জয় ব্রাজিলের ‘বিএনপি উচ্ছৃঙ্খলতা করলে বরদাশত করা হবে না’- রাসিক মেয়র ছোট্ট স্বপ্নের গল্পপাঠের আসর ১১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতির পিতার মৃত্যুতে রাসিক মেয়রের শোক ঢাকা থেকে নৌকা নিয়ে বাঘায় পৌঁছে ফুলে ফুলে সিক্ত হলেন-পিন্টু গোদাগাড়ীর সুলতানগঞ্জ পোর্টে কাস্টমস কার্যক্রম চালুকরণ বিষয়ে মতবিনিময় রাজশাহী মহানগর ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদকের দাদীর মৃত্যুতে শোক শিবগঞ্জে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে শীতকালীন শাক-সবজির বীজ বিতরণ রাসিক মেয়রের সাথে প্যারা কমান্ডো ব্রিগেড কমান্ডারের সৌজন্য সাক্ষাৎ

যুব উন্নয়নে সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প গ্রহণ : সচিব

রিপোর্টারের নাম
  • সময় : বুধবার, ১৬ নভেম্বর, ২০২২
  • ১৩ দেখেছেন

প্রসঙ্গ ডেস্ক : যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উন্নয়নে সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। বিশ্ব ব্যাংকের অর্থায়ণে একটি প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের ৭টি যুব উন্নয়ন ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের আধুনিকায়নসহ নতুন ভবন নির্মাণ, যুব প্রশিক্ষণের আধুনিক সরঞ্জমাদি সরবরাহ, অত্যাধুনিক ক্লাস রুম তৈরিসহ নানা উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হবে।

বুধবার (১৬ নভেম্বর) রংপুর সার্কিট হাউজে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর রংপুর জেলার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মেজবাহ উদ্দিন এসব তথ্য জানান।

সচিব বলেন, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের বিরুদ্ধে প্রায় সময় অভিযোগ পাওয়া যায় এখানে ঠিকমতো প্রশিক্ষণ হয় না। কর্মকর্তারা তাদের কাজে ঠিকমতো মনোযোগ দেন না। অনেকে প্রশিক্ষণ না দিয়ে টাকা উত্তোলন করেছেন। আমরা সেইসব কর্মকর্তাদের স্বেচ্ছাচারিতার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। অনেককে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

মেজবাহ উদ্দিন আরো বলেন, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দেশের প্রতি মমত্ববোধ থাকতে হবে। কাজের মধ্যে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে। কারো বিরুদ্ধে আর্থিক অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগ পেলে তা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যাবে না।

সচিব বলেন, যুব কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ প্রদানে পর্যাপ্ত সরঞ্জমাদির অভাব রয়েছে। এজন্য আমরা বিভিন্ন বিদেশি দাতা সংস্থার মাধ্যমে অধিদপ্তরকে ঢেলে সাজানোর কাজ করছি। আধুনিক যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্রগুলো মনিটরিংয়ের জন্য সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হবে। যা মন্ত্রণালয় থেকে অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, দাতা সংস্থা মনিটরিং করবে। যুব উন্নয়নে প্রতিটি অফিস হবে স্মার্ট অফিস।

তিনি আরও বলেন, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর অনেক ভালো কাজ করলেও তা প্রচারের অভাবে জনগণ জানতে পারছে না। সেই লক্ষ্যে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। পদায়ন, পদন্নোতি নিয়ে জটিলতা নিরসনে আমরা আধুনিক নিয়োগ বিধিমালা প্রস্তুতের কাজ করছি।

জেলা প্রশাসক আসিব আহসানের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, যুব ও উন্নয়ন অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশাসন) আব্দুল হামিদ খান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এডব্লিউএম রায়হান শাহ, রংপুর যুব উন্নয়ন কার্যালয়ের উপ-পরিচালক আব্দুল ফারুকসহ যুব উন্নয়ন কর্মকর্তারা।

দুপুরে রংপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে জেলার যুব উদ্যোক্তা, যুব সংগঠক ও প্রশিক্ষণার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় মিলিত হন তিনি। এসময় জেলা প্রশাসক ছাড়াও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার.....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর.....