শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:০৮ পূর্বাহ্ন

ইএএলজি প্রকল্পে জেলা পর্যায়ে নারী প্রতিনিধিদের সম্মেলন

রিপোর্টারের নাম
  • সময় : বুধবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২২
  • ২২ দেখেছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীর পবা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে জেলা পর্যায়ে ‘‘ স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানে নারীর অংশগ্রহণ: বর্তমান প্রেক্ষাপট এবং ভবিষ্যৎ করণীয় বিষয়ক” সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার কার্যকর ও জবাবদিহিমূলক স্থানীয় সরকার (ইএএলজি) প্রকল্পের আওতায় এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

পবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার লসমী চাকমা‘র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী জেলা প্রশাসকের কার্যালয় স্থানীয় সরকার উপপরিচালক শাহানা আখতার জাহান। সম্মেলনে জেলার ৯জন উপজেলা মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যানগণ উপজেলা নারী উন্নয়ন ফোরামের কার্যক্রমের অগ্রগতি, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানে নারী সদস্যদের অংশগ্রহণে প্রতিবন্ধকতা ও নারীনেতৃত্ব উন্নয়নের সুপারিশসমূহ তাদের বক্তব্যে তুলে ধরেন।

জেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার শবনম শিরিন নারী উন্নয়ন ফোরামের গঠণ ও কার্যাবলী এবং তাঁর দপ্তর থেকে নারী উন্নয়ন ফোরামের অনুকুলে সহায়তার সুযোগ ও ফোরামকে কার্যকর রাখতে করণীয় বিষয়ে আলোকপাত করেন। এছাড়াও সম্মেলনে বিদ্যমান আইন ও বিধি অনুযায়ী নারী জনপ্রতিনিধিদের কাজের সুযোগ চিহ্নিতকরণ, নারীবান্ধব প্রকল্প প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন, নারী নেতৃত্বের উন্নয়ন, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম নারীবান্ধবকরণ, নারীর প্রতি সহিংসতার ধরণ ও প্রতিকার বিষয়ক উপস্থাপন ও গ্রুপ ওয়ার্ক করা হয়।

সম্মেলনে বাগামারা উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ আক্তার বেবী বলেন “ বাগমারা উপজেলা নারী উন্নয়ন ফোরাম কর্তৃক ২০২১-২২ অর্থ বছরে এডিপি থেকে ৫ লক্ষ টাকা প্রাপ্ত বরাদ্দ দিয়ে ৫৮ জন দরিদ্র ছাত্রীদেরকে বাইসাইকেল বিতরণ করা হয়। আগামী বরাদ্দে দরিদ্র প্রতিবন্ধীদের মাঝে হুইল চেয়ার বিতরণ করা পরিকল্পনা রয়েছে। এ বরাদ্দ নিয়মিত প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা প্রত্যাশা করছি।”

তানোর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সোনিয়া সরদার বলেন “ উপজেলা থেকে ৩শতাংশ বরাদ্দ নারী উন্নয়ন ফোরামের অনুকুলে পাওয়া গেলে, মাসিক সমন্বয় সভায় নারী প্রতিনিধিদের সক্রিয় অংশগ্রহণ ও তাঁদের বক্তব্য মূল্যায়ন নিশ্চিত করা গেলে নারী নেতৃত্ব আরো বেগবান হবে বলে মনে হয়”।

প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে এমন একটি ব্যতিক্রমী সম্মেলন আয়োজনে সহায়তার জন্য ইএএলজি প্রকল্পকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন স্থানীয় পর্যায়ে নারী নেতৃত্বের উন্নয়ন করতে হলে শুধুমাত্র নির্বাচনে জিতে আসলেই দায়িত্ব শেষ নয়, অধিকার আদায়ের সঠিক পদ্ধতি হলো সংশ্লিষ্ট আইনকানুন জানা-বোঝা এবং সে অনুযায়ী এ্যাডভোকেসী করা। আর্থিকভাবে নিজেদের স্বাবলম্বী করা। সেক্ষেত্রে নারী উন্নয়ন ফোরামের নিয়মিত চাঁদার মাধ্যমে নিজস্ব তহবিল গঠণ করা যেতে পারে। তিনি ৩শতাংশ এডিপি নারী উন্নয়ন ফোরামের অনুকুলে রাখতে সকল প্রকার সহায়তার আশ্বাস প্রদান করেন।

সভাপতি তাঁর বক্তব্যে বলেন “নারী নেতৃত্বের উন্নয়ন করতে হলে আমাদেরকে এটি নিয়ে ভাবতে হবে, কৌশলী হতে হবে, অধিকার আদায়ে কার্যকর পরিকল্পনা অনুযায়ী চলতে হবে“। তিনি পবা উপজেলায় নারী সম্মেলনের আয়োজন করার জন্য প্রধান অতিথিসহ সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পবা উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার শিমুল বিল্লাহ সুলতানা, পবা উপজেলা ডেভেলপমেন্ট ফ্যাসিলিটেটর জাকিয়া সুলতানা। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন রাজশাহী ইউএনডিপি ইএএলজি প্রকল্পের ডিএফ আবু হেনা মস্তফা কামাল।

সম্মেলনে ইএএলজি প্রকল্পের আওতাধীন ৩০টি ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষতি মহিলা সদস্যবৃন্দ, ৩টি পৌরসভার সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরবৃন্দ এবং ৯টি উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানবৃন্দসহ মোট ১১১ জন নারীনেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার.....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর.....