মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৩:২৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
প্রাক্তন ছাত্রীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ উঠেছে সহকারী প্রক্টরের নেইমারকে ছাড়াই জয় ব্রাজিলের ‘বিএনপি উচ্ছৃঙ্খলতা করলে বরদাশত করা হবে না’- রাসিক মেয়র ছোট্ট স্বপ্নের গল্পপাঠের আসর ১১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতির পিতার মৃত্যুতে রাসিক মেয়রের শোক ঢাকা থেকে নৌকা নিয়ে বাঘায় পৌঁছে ফুলে ফুলে সিক্ত হলেন-পিন্টু গোদাগাড়ীর সুলতানগঞ্জ পোর্টে কাস্টমস কার্যক্রম চালুকরণ বিষয়ে মতবিনিময় রাজশাহী মহানগর ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদকের দাদীর মৃত্যুতে শোক শিবগঞ্জে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে শীতকালীন শাক-সবজির বীজ বিতরণ রাসিক মেয়রের সাথে প্যারা কমান্ডো ব্রিগেড কমান্ডারের সৌজন্য সাক্ষাৎ

প্রতিদিনের কর্মচাঞ্চল্য বৃদ্ধি যেভাবে

রিপোর্টারের নাম
  • সময় : সোমবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২২
  • ৩৬ দেখেছেন

প্রসঙ্গ ডেস্কঃ প্রতিদিন কিছু শারীরিক ব্যায়াম এবং নিয়মকানুন মেনে চললে শরীর থাকবে রোগমুক্ত, কর্মচঞ্চল, ফুরফুরে। সেগুলো জেনে নিয়ে আলস্য ছেড়ে নিজেকে গড়ে তুলুন ডায়ানামিক ডিরেক্টর হিসেবে।

পর্যাপ্ত পানি পান করুন

ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে দাঁত ব্রাশ করার আগে পর্যাপ্ত পানি পান করুন। সারা রাত ঘুমের জন্য আমাদের শরীর ৭ থেকে ৮ ঘণ্টা বা তার বেশি সময় পানি পায় না। সকালে ব্যায়াম শুরুর আগে অতিরিক্ত না খেয়ে পানি পানই যথেষ্ট। যদি শরীর দুর্বল লাগে তবে বিস্কুট, রুটি ও সবজি বা সেদ্ধ ডিমের মতো হালকা কিছু খেয়ে নিতে পারেন।

যে ধরনের ব্যায়াম
শারীরিক সুস্থতার জন্য নিয়মিত কমপক্ষে ৩০ মিনিট ব্যায়াম করতে হবে। তবে শরীরের গঠন অনুযায়ী ব্যায়ামের পদ্ধতি কোনো অভিজ্ঞ প্রশিক্ষকের পরামর্শে বাছাই করুন।

হাঁটাহাঁটি

ব্যায়ামের উদ্দেশ্যে মনস্থির করে আলাদাভাবে হাঁটাহাঁটি করতে হবে সুবিধা মতো জায়গায়। সকালের বাতাস নির্মল এবং তাতে প্রচুর অক্সিজেন থাকে বলে শরীরের জন্য উপকারী। যদি ওজন কমানোর লক্ষ্যে হাঁটতে চান, তাহলে কমপক্ষে ৩০ মিনিট হাঁটতে হবে। ওজন স্বাভাবিক হলে কমপক্ষে ১৫ মিনিট হাঁটুন।

প্রতিদিন ৩০ মিনিট হাঁটার ফলাফল

  • হৃৎপিণ্ড সুস্থ রাখে ও স্ট্রোকের ঝুঁকি কমায়।
  • নিয়ন্ত্রিত রক্তচাপ বজায় থাকে।
  • অতিরিক্ত ওজন কমায়।
  • সুগার লেভেল কমাতে সাহায্য করে।
  • হাড় মজবুত এবং ভারসাম্যের উন্নতি সাধন করে।

হালকা দৌড়ানো
অতিরিক্ত ওজন কমাতে হলে প্রতিদিন ৩০ মিনিট দৌড়াতে হবে। দৌড়ের গতি কখনই নিজের নিয়ন্ত্রণের বাইরে নিয়ে যাবেন না। তাহলে খুব তাড়াতাড়ি ক্লান্ত হয়ে পড়বেন।

দৌড়ানোর সময়

  • গতিনিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে।
  • দৌড়ের স্টেপের সঙ্গে ব্রেথিং করতে হবে। যেমন, ৪ স্টেপে শ্বাস ভরুন এবং পরবর্তী ৪ স্টেপে শ্বাস ছাড়ুন।
  • শরীরের ভর পায়ের পাতার দিয়ে দৌড়ানোর অভ্যাস করবেন।

দৌড়ানোর ফল

  • অতিরিক্ত ওজন কমে দ্রুত।
  • শরীর ও মন কর্মচঞ্চল থাকে, কাজকর্মে গতি বাড়ে।
  • শরীরে রোগ-জীবাণু বাসা বাঁধতে পারে না।
  • পায়ের মাংসপেশি ও হাড় অনেক মজবুত হয়।
  • কোষ বিভাজিত হয়ে নতুন কোষ তৈরির গতি বাড়ে। ফলে ত্বক সুন্দর হয়।

দড়ি লাফ
অল্প জায়গার মধ্যে দড়ি লাফ খুব চমৎকার একটা ব্যায়াম। কমপক্ষে ৫ মিনিট করতে হবে। নিজের ওজন ও দক্ষতা অনুযায়ী গতিনিয়ন্ত্রণ করবেন। এ ক্ষেত্রেও শরীরের ভর পায়ের পাতার ওপর রাখতে হবে।

সতর্কতা

  • ধুলো বালি এড়াতে মাস্ক ব্যবহার করুন। নইলে অ্যালার্জি বা অ্যাজমার সমস্যা হতে পারে।
  • হাঁটা বা দৌড়ানোর সময় সম্ভব হলে স্পোর্টস সু ব্যবহার করুন।
  • শরীরচর্চার পর দ্রুত পোশাক বদলান।
  • ঘাম শুকিয়ে শরীর ঠান্ডা হলে গোসল করুন।

সূত্রঃ আজকের পত্রিকা

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার.....

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর.....