মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৭:৩২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শারদীয় দূর্গাপূজার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ছাত্রলীগের গণযোগাযোগ ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক তূর্য চারঘাটে নিজ গায়ে আগুন লাগিয়ে বৃদ্ধার আত্মহত্যা রাজশাহীতে চলন্ত বাসে ঢুকে গেল বিদ্যুতের খুঁটি নগরায়নের নয়া মহামারি ‘শব্দদূষণ’ রোধের দাবি তরুণদের আরইউজে সম্পাদকের ওপর হামলায় জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার জেলা শাখার নিন্দা বানেশ্বরে নাদের আলী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ও সভাপতির হাতাহাতি ওয়ালটনের কল সেন্টারে চাকরির সুযোগ রাজশাহীর শ্রেষ্ঠ ইউএনও দুর্গাপুরের সোহেল রানা পুঠিয়া রিপোর্টার্স ইউনিটির কমিটি গঠন: সভাপতি আরিফ, সম্পাদক রুবেল তানোরে রংতুলির কাজ শেষ, থানে তোলার অপেক্ষায় প্রতিমা 

প্রেমের কারণে বাগাতিপাড়ায় স্কুলছাত্রকে খুন

রিপোর্টারের নাম
  • সময় : বৃহস্পতিবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ২৩ দেখেছেন

প্রসঙ্গ ডেস্কঃ নাটোরের বাগাতিপাড়ায় প্রেমের কারণে জাহিদুল ইসলাম খুন হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার বাগাতিপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত ২৮ আগস্ট জাহিদুল ইসলাম নামের এসএসসি পরীক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করেন পুলিশ। তারপর সন্দেহজনকভাবে পরের দিন তার নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়ে বন্ধুকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী তার ভাই রেজাউল করিম, বাবা মোবারক হোসেন এবং খালা মাসুরা বেগমকে গ্রেপ্তার করা হয়। রেজাউল করিমের দেওয়া তথ্য মতে ২৮ আগস্ট তাঁদের বাড়ির পাশের একটি ডোবা থেকে জাহেদুলের ব্যবহার করা মোবাইল ফোনটি উদ্ধার করে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতদের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, মাঝে মধ্যেই রাতে জাহিদুল ওই মেয়ে বন্ধুর সঙ্গে গোপনে দেখা করতে যেতেন। ঘটনার দিন রাতে পরিবারের লোকজন বিষয়টি টের পায়। পরে জাহিদুলকে কিশোরীর ভাই রেজাউল এলোপাতাড়ি মারপিট শুরু করেন। একপর্যায়ে বাবা ও খালা এসেও মারপিট করতে থাকেন। এতে সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে এলাকার একজন পল্লি চিকিৎসককে ডেকে নিয়ে আসলে জাহিদুল মারা গেছে বলে জানান তিনি। তখন পরিবারের লোকজন মিলে জাহিদুলকে ওই রাতেই অভিযুক্তদের বাড়ি থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দক্ষিণ দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের কালারা ব্রিজ সংলগ্ন মাঠে ফেলে যায়। পরদিন সকালে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

এ ব্যাপারে ওসি সিরাজুল ইসলাম বলেন, হত্যার চার দিনের মাথায় রহস্য উদ্‌ঘাটন করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত চারজনকে গ্রেপ্তার করে তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত চলছে, আরও কেউ জড়িত থাকলে তাদেরকেও গ্রেপ্তার করা হবে।

উল্লেখ্য, জাহিদুল কাঁকফো নতুন পাড়া গ্রামের রাশেদুল ইসলামের ছেলে। জাহিদুল নাটোর সদরের পিরগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের ভকেশনাল শাখার মেকানিক্যাল ট্রেডের শিক্ষার্থী ছিল। সে নাটোরের লক্ষীপুর-খোলাবাড়িয়া ইউনিয়নের কাঁঠাবাড়িয়া এলাকায় তার নানা সামাদ আলীর বাড়ি থেকে পড়াশোনা করত। গত ২৭ আগস্ট (শনিবার) বিকেল ৩টার দিকে প্রতিবেশী একজনকে জরুরি রক্ত দেওয়ার কথা বলে নানা বাড়ি থেকে বের হয়। তারপর ২৮ আগস্ট (রোববার) সকালে তার বাবার বাড়ি কাঁকফো এলাকায় মরদেহ পাওয়া যায়।

সূত্রঃ আজকের পত্রিকা

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার.....

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো খবর.....