মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৭:১৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শারদীয় দূর্গাপূজার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ছাত্রলীগের গণযোগাযোগ ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক তূর্য চারঘাটে নিজ গায়ে আগুন লাগিয়ে বৃদ্ধার আত্মহত্যা রাজশাহীতে চলন্ত বাসে ঢুকে গেল বিদ্যুতের খুঁটি নগরায়নের নয়া মহামারি ‘শব্দদূষণ’ রোধের দাবি তরুণদের আরইউজে সম্পাদকের ওপর হামলায় জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার জেলা শাখার নিন্দা বানেশ্বরে নাদের আলী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ও সভাপতির হাতাহাতি ওয়ালটনের কল সেন্টারে চাকরির সুযোগ রাজশাহীর শ্রেষ্ঠ ইউএনও দুর্গাপুরের সোহেল রানা পুঠিয়া রিপোর্টার্স ইউনিটির কমিটি গঠন: সভাপতি আরিফ, সম্পাদক রুবেল তানোরে রংতুলির কাজ শেষ, থানে তোলার অপেক্ষায় প্রতিমা 

সালমান শাহকে নিয়ে যা বললেন শরীফুল রাজ

রিপোর্টারের নাম
  • সময় : মঙ্গলবার, ২৩ আগস্ট, ২০২২
  • ২১ দেখেছেন

প্রসঙ্গ ডেস্কঃ চিত্রনায়ক শরীফুল রাজ বলেছেন, আমি সালমান শাহের শহরে বড় হয়েছি এটাই আমার অনুপ্রেরণা। সোমবার (২২ আগস্ট) বিকেলে সিলেটের একটি পাঁচ তারকা হোটেলে ‘পরাণ’ সিনেমা দেখার পূর্বমুহূর্তে প্রয়াত চিত্রনায়ক সালমান শাহকে নিয়ে নিজের স্মৃতিচারণ করেন শরীফুল রাজ। সিলেট শহরে স্কুল ও কলেজ জীবনের স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, প্রায়ই আব্বু আমাকে নিয়ে মাজারে যেতেন। সেখানে সালমান শাহের কবর দেখতাম। স্কুলে যাওয়ার সময় সালমান শাহের বাড়ির সামনে দিয়ে যেতাম। এসব আমাকে অনুপ্রাণিত করেছে। তিনি বলেন, সালমান শাহ একজন সুপারস্টার। এমন আধুনিক ও সুদর্শন নায়ক বাংলা সিনেমায় আর কবে আসবে জানি না! সালমান শাহের শহরে আমার বেড়ে ওঠা, এটাই অনেক কিছু। সালমান শাহকে এখনো মানুষ ভালোবাসে, লালন করে, ধারণ করে। আমার প্রিয় নায়ক তিনি। অতীতের স্মৃতিচারণ করে শরীফুল রাজ বলেন, ২০০২-০৪ সালের দিকে আমি সিলেটে আসি। এইডেড স্কুল ও মদনমোহন কলেজে আমি পড়েছি। সিলেট আমার প্রিয় শহর। কালচারালি সিলেট অনেক স্ট্রং। সিলেট শহরটা আমার কাছে স্মৃতিবিজড়িত শহর।

এ সময় তিনি জানান, সদ্য মুক্তি পাওয়া নিজের অভিনীত দুটি চলচ্চিত্র ‘পরাণ’ ও ‘হাওয়া’ নিয়ে দর্শকদের প্রতিক্রিয়া জানাই ছিল এ আগমনের উদ্দেশ্য। সিলেটের একটি পাঁচ তারকা হোটেলে গত ২৯ জুলাই ‘হাওয়া’ সিনেমা মুক্তির মধ্য দিয়ে সিলেটে প্রথমবারের মতো সিনেপ্লেক্সের যাত্রা শুরু হয়। ‘হাওয়া’র পাশাপাশি এখানে ‘পরাণ’ সিনেমাও প্রদর্শিত হচ্ছে। প্রতিদিন দুপুর তিনটা ও সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় দুটি প্রদর্শনী চলছে। সোমবার সিনেপ্লেক্সে সিনেমা দেখতে আসা দর্শকদের সঙ্গে শরীফুল রাজ কথা বলেন। এ সময় দর্শকদের ভালোবাসায় সিক্ত হন তিনি। সিনেমার দর্শকদের প্রতিক্রিয়া জানার আগে দুপুর সোয়া তিনটার দিকে স্থানীয় সংবাদকর্মীদের সঙ্গে সিনেপ্লেক্সের সামনে কথা বলেন চিত্রনায়ক শরীফুল রাজ। এ সময় তিনি বলেন, সিলেটে পরিবার নিয়ে সিনেমা দেখার মতো ভালো সিনেমা হল কিংবা পরিবেশ ছিল না। গ্র্যান্ড সিলেটে সিনেপ্লেক্স চালু হওয়ায় অনেকেই এখন পরিবার নিয়ে সিনেমা দেখতে পারছেন।

চিত্রনায়ক শরীফুল রাজ বলেন, সিলেটের সিনেমা হলগুলোতেও আমি প্রচুর সিনেমা দেখেছি। নিজে টিকিট কেটে সিনেমা দেখতাম। একটা সময় আমার জানা মতে এখানে ১৫-১৬টা হল ছিল। এখন অনেকগুলোই নেই। তবে এই সিনেপ্লেক্স উদ্বোধনের পর থেকেই ভেবেছি, আসবো। এখানে দ্বিতীয় সপ্তাহের মতো ‘পরাণ’ চলছে। ‘হাওয়া’ সিনেমাও ভালো চলেছে। নিজের শহরে সেটা দেখার তাড়না থেকেই সিলেটে আসা। এ সময় ‘পরাণ’ সিনেমার নির্মাতা রায়হান রাফি বলেন, আমিও সিলেটের সন্তান। বাড়ি সিলেটের গোলাপগঞ্জে। নানুর বাসাও সিলেটে। যদিও আমি সিলেটে বড় হইনি। সিলেট নিয়ে একটা টান আমার ছিল। সিলেটে পরিবার নিয়ে সিনেমা দেখার পরিবেশ ছিল না। এখন এই সিনেপ্লেক্স হওয়ায় পরিবেশ তৈরি হয়েছে। তবে সিলেটে প্রচুর মানুষ সিনেমা দেখতে চায়। সিলেটে আরও কয়েকটি ভালোমানের সিনেমা হল হওয়া উচিত। রায়হান রাফি আরও বলেন, আমি সব সময় সাহসী সিনেমা বানাতে পছন্দ করি। মানুষ আমার সিনেমা গ্রহণ করেছে, এটা আমার জীবনের বড় প্রাপ্তি।

সূত্রঃ সময় নিউজ

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার.....

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো খবর.....