মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৬:৫০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শারদীয় দূর্গাপূজার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ছাত্রলীগের গণযোগাযোগ ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক তূর্য চারঘাটে নিজ গায়ে আগুন লাগিয়ে বৃদ্ধার আত্মহত্যা রাজশাহীতে চলন্ত বাসে ঢুকে গেল বিদ্যুতের খুঁটি নগরায়নের নয়া মহামারি ‘শব্দদূষণ’ রোধের দাবি তরুণদের আরইউজে সম্পাদকের ওপর হামলায় জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার জেলা শাখার নিন্দা বানেশ্বরে নাদের আলী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ও সভাপতির হাতাহাতি ওয়ালটনের কল সেন্টারে চাকরির সুযোগ রাজশাহীর শ্রেষ্ঠ ইউএনও দুর্গাপুরের সোহেল রানা পুঠিয়া রিপোর্টার্স ইউনিটির কমিটি গঠন: সভাপতি আরিফ, সম্পাদক রুবেল তানোরে রংতুলির কাজ শেষ, থানে তোলার অপেক্ষায় প্রতিমা 

‘স্বাধীনতাবিরোধী চক্র এখনও সম্প্রীতির বাংলাদেশ দেখতে চায় না’

রিপোর্টারের নাম
  • সময় : শনিবার, ২০ আগস্ট, ২০২২
  • ২১ দেখেছেন

প্রসঙ্গ ডেস্কঃ শোকের ও ষড়যন্ত্রের মাস আগস্ট উপলক্ষে সিলেটে ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’ নামক সামাজিক সংগঠনের উদ্যোগে ‘সম্প্রীতির পথে সাফল্যের অগ্রযাত্রা’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকালে সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’র আহ্বায়ক পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়। সিলেট সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্তের পরিচালনায় সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন, শহীদ জায়া শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী।

বিশেষ বক্তার বক্তব্য রাখেন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’র সদস্য সচিব অধ্যাপক মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন- সম্প্রীতির শক্তিতে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ হয়েছিলো বলেই আমরা একটি স্বাধীন দেশ পেয়েছি। পাকিস্তান বিভিন্নভাবে নিপীড়নের পাশাপাশি সাম্প্রদায়িক আগ্রাসনও চালিয়েছিল বাঙালিদের উপর। তাই একাত্তর সালে হিন্দু-মুসলিমসহ সকল জাত-ধর্মের মানুষ কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে পাক হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে বিজয় ছিনিয়ে এনেছিল।

কিন্তু বিজয়ের পরও পাকিস্তানিদের দোসররা সম্প্রীতির বাংলাদেশ গড়ার পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়াচ্ছে বার বার। স্বাধীনতাবিরোধী চক্র এখনও সম্প্রীতির বাংলাদেশ দেখতে চায় না। এরই প্রমাণ- পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের রাতে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের উপর নির্মম হত্যাযজ্ঞ।

এরপরও থাকা জঙ্গি-মৌলবাদী গোষ্ঠী থেমে থাকেনি। রমনায় বোমা হামলা, একুশে আগস্ট দেশজুড়ে সিরিজ বোমা হামলা, যশোরে বোমা হামলা, সিলেটের শাহজালাল মাজারে ও হোটেলে আওয়ামী লীগের সভায় বোমা হামলাসহ বিভিন্ন সময়ে সন্ত্রাসী হামলা এবং কর্মকাণ্ড প্রমাণ করে- এখনও পাকিস্তানের দোসররা আমাদের স্বাধীন বাংলায় বিচরণ করছে। আর এদের সব সময় লালন-পালন করছে বিএনপি-জামায়াত সরকার।

বক্তারা আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সম্প্রীতির বাংলাদেশ গড়তে অবিরাম কাজ করে যাচ্ছেন তার সুযোগ্য কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার বলিষ্ঠ ও সুদৃঢ় নেতৃত্বে আজ আমরা উপহার পেয়েছি একটি অসাম্প্রদায়িক ও সম্প্রীতির বাংলাদেশ। এ ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে সরকারকে আমাদের সহযোগিতা করতে হবে। পাকিস্তানি দোষর ও জঙ্গি-মৌলবাদী গোষ্ঠীকে চিহ্নিত করে আইনের হাতে তুলে দিতে হবে।

সুত্রঃ যুগান্তর

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার.....

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো খবর.....