মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৭:২৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শারদীয় দূর্গাপূজার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ছাত্রলীগের গণযোগাযোগ ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক তূর্য চারঘাটে নিজ গায়ে আগুন লাগিয়ে বৃদ্ধার আত্মহত্যা রাজশাহীতে চলন্ত বাসে ঢুকে গেল বিদ্যুতের খুঁটি নগরায়নের নয়া মহামারি ‘শব্দদূষণ’ রোধের দাবি তরুণদের আরইউজে সম্পাদকের ওপর হামলায় জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার জেলা শাখার নিন্দা বানেশ্বরে নাদের আলী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ও সভাপতির হাতাহাতি ওয়ালটনের কল সেন্টারে চাকরির সুযোগ রাজশাহীর শ্রেষ্ঠ ইউএনও দুর্গাপুরের সোহেল রানা পুঠিয়া রিপোর্টার্স ইউনিটির কমিটি গঠন: সভাপতি আরিফ, সম্পাদক রুবেল তানোরে রংতুলির কাজ শেষ, থানে তোলার অপেক্ষায় প্রতিমা 

ভারতে ছড়াতে পারে ‘টমেটো ফ্লু’ ভাইরাস, সতর্ক করলেন বিজ্ঞানীরা

রিপোর্টারের নাম
  • সময় : শনিবার, ২০ আগস্ট, ২০২২
  • ২৭ দেখেছেন

প্রসঙ্গ ডেস্কঃ করোনা ভাইরাস মহামারির মধ্যেই ভারতে দেখা দিতে পারে নতুন সংকট। দেশটিতে ‘টমেটো ফ্লু’ নামে একটি নতুন ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ব্যাপারে সতর্ক করেছেন বিজ্ঞানীরা। সাধারণত ভাইরাসটি মানুষের হাত, পা এবং মুখে আক্রমণ করে। এখন পর্যন্ত ভারতের কেরালা এবং ওডিশা রাজ্যে এই ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন।

বিজ্ঞান সাময়িকী ল্যানসেট রেসপিরেটরি জার্নালের এক নিবন্ধে বলা হয়েছে, ভারতের কেরালা রাজ্যের কুল্লামে গত ৬ মে প্রথমবারের মতো টমেটো ফ্লু শনাক্ত হয়। সে সময় ৮২টি শিশু ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছিল। ল্যানসেটের নিবন্ধে আরও বলা হয়, সব কটি শিশুর বছরই ৫ বছরের নিচে।

ল্যানসেটের নিবন্ধে বলা হয়, ‘যে সময়টাতে আমরা কোভিড-১৯ এর চতুর্থ ঢেউয়ের সম্ভাব্য উত্থান মোকাবিলার চেষ্টা করছি ঠিক তক্ষুনি টমেটো ফ্লু বা টমেটো জ্বর নামে পরিচিত একটি নতুন ভাইরাস ভারতের কেরালা রাজ্যে ৫ বছরের কম বয়সী শিশুদের মধ্যে আবির্ভূত হয়েছে।’

সংক্রামক এই রোগটি অন্ত্রের ভাইরাসের মাধ্যমে ছড়ায়। প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে এই রোগটি বিরল। কারণ প্রাপ্ত বয়স্ক দেহে সাধারণত ভাইরাস থেকে রক্ষার জন্য যথেষ্ট শক্তিশালী ইমিউন সিস্টেম থাকে। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে রোগীর শরীরে ব্যথা হয়, লাল ফোসকা দেখা দেয় এবং তা ধীরে ধীরে টমেটোর আকারের মতো বড় হয়ে যায় এবং এ কারণে এর নামকরণ করা হয়েছে টমেটো ফ্লু।’

এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর ব্যক্তির মধ্যে যে লক্ষণগুলো দেখা দেয় তার মধ্যে রয়েছে—জ্বর, শরীর ব্যথা, হাড়ের জয়েন্ট ফুলে যাওয়া এবং ক্লান্তি অনুভব করা। যা অনেকটা চিকুনগুনিয়ার মতো। কিছু কিছু ক্ষেত্রে রোগী বমি বমি ভাব, বমি, ডায়রিয়া, জ্বর, পানি শূন্যতার মতো বিষয়ও দেখা দিতে পারে।

ল্যানসেট জানিয়েছে, কেরালার অন্যান্য যেসব এলাকায় ভাইরাসটির প্রকোপ দেখা দিয়েছে সেগুলো হলো—আঁচল, আরিয়ানকাভু এবং নেদুভাথুর। এই ভাইরাসটিকে আমলে নিয়ে প্রতিবেশী রাজ্য তামিলনাড়ু এবং কর্ণাটকে সতর্কতা জারি করেছে। ওডিশার ভুবনেশ্বরের আঞ্চলিক চিকিৎসা গবেষণা কেন্দ্র ওডিশায় ২৬ শিশুর এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কথা জানিয়েছে।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই ভাইরাসটির সংক্রমণের চিকিৎসার জন্য কোনো নির্দিষ্ট ওষুধ নেই। তবে ভাইরাসটি খুবই সংক্রামক।

সূত্রঃ এনডিটিভি

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার.....

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো খবর.....