মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৮:৩৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শারদীয় দূর্গাপূজার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ছাত্রলীগের গণযোগাযোগ ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক তূর্য চারঘাটে নিজ গায়ে আগুন লাগিয়ে বৃদ্ধার আত্মহত্যা রাজশাহীতে চলন্ত বাসে ঢুকে গেল বিদ্যুতের খুঁটি নগরায়নের নয়া মহামারি ‘শব্দদূষণ’ রোধের দাবি তরুণদের আরইউজে সম্পাদকের ওপর হামলায় জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার জেলা শাখার নিন্দা বানেশ্বরে নাদের আলী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ও সভাপতির হাতাহাতি ওয়ালটনের কল সেন্টারে চাকরির সুযোগ রাজশাহীর শ্রেষ্ঠ ইউএনও দুর্গাপুরের সোহেল রানা পুঠিয়া রিপোর্টার্স ইউনিটির কমিটি গঠন: সভাপতি আরিফ, সম্পাদক রুবেল তানোরে রংতুলির কাজ শেষ, থানে তোলার অপেক্ষায় প্রতিমা 

আইফোন ১৪ সিরিজে যা যা থাকছে

রিপোর্টারের নাম
  • সময় : শুক্রবার, ১৯ আগস্ট, ২০২২
  • ৩৩ দেখেছেন

প্রসঙ্গ ডেস্কঃ অ্যাপলের নতুন স্মার্টফোন আইফোন ১৪ সিরিজ আগামী ৭ সেপ্টেম্বর উন্মোচন করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে। লাইনআপে থাকতে পারে আইফোন ১৪, আইফোন ১৪ ম্যাক্স, আইফোন ১৪ প্রো এবং আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্স।

আসন্ন স্মার্টফোনের বিশদ বিবরণ নিয়ে বেশ রাখঢাক করছে অ্যাপল। বরাবরই অবশ্য তারা সেটি করে। তবে হ্যান্ডসেটের সম্ভাব্য স্পেসিফিকেশন, ডিজাইন এবং মূল্য নিয়ে কিছু তথ্য এরই মধ্যে ফাঁস হয়েছে। এ যাবত বিভিন্ন ব্লগে জল্পনায় যেসব ইঙ্গিত দেওয়া হচ্ছে তাতে ধারণা করা যেতে পারে—অ্যাপল আইফোন ১৪ সিরিজে একটি মিনি মডেল ভ্যানিলা আইফোন ১৪-এর পাশাপাশি আইফোন ১৪ ম্যাক্স, আইফোন ১৪ প্রো এবং আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্স থাকবে।

আইফোন ১৪ সিরিজের দাম, লঞ্চের তারিখ

একটি সাম্প্রতিক প্রতিবেদন অনুসারে, আইফোন ১৪ লাইনআপটি আগামী ৭ সেপ্টেম্বর একটি অনুষ্ঠানে উন্মোচন করা হতে পারে। অ্যাপল এবারও সশরীরে অনুষ্ঠান না করে অনলাইনে স্ট্রিম করতে চায় বলে জানা গেছে।

আইফোন ১৪-এর দাম ৭৯৯ ডলার থেকে শুরু হতে পারে। আইফোন ১৪ প্রো এবং আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্স-এর দাম গত বছরের আইফোন ১৩ প্রো এবং আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্সের তুলনায় ১০০ ডলার বাড়তে পারে।

আর আইফোন ১৪ ম্যাক্সের দাম আইফোন ১৪ এবং আইফোন ১৪ প্রো-এর মাঝামাঝি হতে পারে।

আইফোন ১৪ সিরিজের স্পেসিফিকেশন, বৈশিষ্ট্য
আইফোন ১৪ প্রো এবং আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্সে অ্যাপলের নতুন এ১৬ বায়োনিক চিপ রয়েছে বলে গুঞ্জন রয়েছে। তাইওয়ানের চিপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টিএসএমসি-এর বর্তমান ৫ ন্যানোমিটার প্রযুক্তির ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে এটি।

আর আইফোন ১৪ এবং আইফোন ১৪ ম্যাক্সে থাকবে অ্যাপলের নিয়মিত এ১৫ বায়োনিক চিপ। আইফোন ১৩ সিরিজেও এই চিপ ব্যবহার করা হয়েছে। একই চিপ থাকলেও আইফোন ১৪ এবং আইফোন ম্যাক্সের নতুন সেলুলার মডেম এবং অভ্যন্তরীণ ডিজাইনের কারণে কর্মক্ষমতা বেশি হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

প্রো এবং নন-প্রো মডেলের পারফরম্যান্সের পার্থক্য অনেকখানি মেমরির (র‍্যাম) ওপর নির্ভর করে বলে বিশেষজ্ঞরা বলে থাকেন। একটি ব্লগে দাবি করা হচ্ছে, আইফোন ১৪ প্রো এবং প্রো ম্যাক্সে ৬ জিবি এলপিডিডিআর ৫ র‍্যাম থাকতে পারে। প্রো মডেলগুলোতে বিল্টইন স্টোরেজ থাকতে পারে ২ টিবি (টেরাবাইট) পর্যন্ত। অন্যদিকে আইফোন ১৪ এবং আইফোন ১৪ ম্যাক্সে তুলনামূলক ধীরগতির র‍্যাম— ৬ জিবি এলপিডিডিআর৪ এক্স থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে।

নির্ভরযোগ্য বিশ্লেষক মিং-চি কুও ধারণা করছেন, আইফোন ১৪ সিরিজে f/ 1.9 অ্যাপারচার যুক্ত লেন্স এবং অটোফোকাসসহ একটি আপগ্রেডেড ফ্রন্ট ক্যামেরা থাকতে পারে। কুও দাবি করেছেন, আইফোন ১৪ প্রো এবং আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্সের পেছনে একটি ৪৮ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড-এঙ্গেল সেন্সর থাকতে পারে।

আর ডিসপ্লে সম্পর্কে এখন পর্যন্ত যতোখানি জানা যাচ্ছে তার ভিত্তিতে বলা যায়, আইফোন ১৪-এ ৬.১ ইঞ্চি এবং আইফোন ১৪ ম্যাক্সে ৬.৭ ইঞ্চি ডিসপ্লে থাকতে পারে। আর প্রো মডেলগুলোতে একটি অলওয়েজ অন ডিসপ্লে (এওডি) বৈশিষ্ট্যও থাকতে পারে। আইফোন ১৪ প্রো-এর একটি স্ক্রিন প্রটেক্টরের ছবি ফাঁস হয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে। সেই ছবিগুলো দেখে অনুমান করা যেতে পারে, এবারের সিরিজে নোচের আকৃতি বেশ ছোট হয়ে আসবে। বৃত্তাকার ও ক্যাপসুল আকৃতির দুটি আলাদা নোচ থাকতে পারে।

একটি সাম্প্রতিক প্রতিবেদন অনুসারে, আইফোন ১৪-এর কালো, নীল, সবুজ, বেগুনি, লাল এবং সাদা রঙের ভ্যারিয়েন্ট থাকতে পারে। আর আইফোন ১৪ প্রোর থাকতে পারে সোনালী, গ্রাফাইট, সবুজ, বেগুনি এবং সিলভার রঙের ভ্যারিয়েন্ট।

প্রতিবেদনে আরও দাবি করা হচ্ছে, আইফোন ১৪ সিরিজ ৩০ ওয়াট চার্জিং সমর্থন করবে। পাশাপাশি বড় এবং ভারী ম্যাগসেফ ব্যাটারি থাকতে পারে।

আইফোন ১৪ সিরিজের ব্যাটারির ক্ষমতা উল্লেখযোগ্য পরিমাণ বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে। আইফোন ১৪ এবং আইফোন ১৪ ম্যাক্সে যথাক্রমে ৩ হাজার ২৭৯ মিলি অ্যাম্পিয়ার আওয়ার এবং ৪ হাজার ৩২৫ মিলি অ্যাম্পিয়ার আওয়ার ব্যাটারি থাকতে পারে। আর আইফোন ১৪ প্রোতে থাকবে ৩ হাজার ২০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার আওয়ার এবং আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্সে থাকবে ৪ হাজার ৩২৩ মিলি অ্যাম্পিয়ার আওয়ার ব্যাটারি থাকতে পারে। এছাড়া প্রো মডেলগুলোতে উচ্চগতির ইউএসবি ৩.০ (৫ গিগাবিট পার সেকেন্ড) লাইটনিং পোর্ট থাকতে পারে।

তথ্যসূত্র: গেজেট থ্রিসিক্সটি ডিগ্রি

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার.....

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো খবর.....