শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:২৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বগুড়ায় এশিয়ান বার্তার প্রতিনিধি সম্মেলন বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ রাজশাহী জেলা শাখার ১৬ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী দূর্গাপূজা উপলক্ষে রাজশাহীতে এমপি বাদশার আর্থিক অনুদান সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ পুলিশ: মাসুদ হোসেন রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের ৫ টি ইউনিটে নতুন কমিটি ঘোষণা  তানোরে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মতবিনিময় সভা শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে রাসিকের গঠিত কমিটির সভা অনুষ্ঠিত  এলআইইউপিসি প্রকল্পের সিটি লেভেল মাল্টিসেক্টরাল নিউট্রিশন কো-অর্ডিনেশন কমিটির সভা  রাসিক মেয়রের সাথে টেনিস বিজয়ী খেলোয়াড়দের সৌজন্য সাক্ষাৎ বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে বহুজাতিক কোম্পানিতে চাকুরীর দক্ষতা এবং ইতিবাচক মনোভাব বিষয়ক সেমিনার 

কূটনৈতিক সম্পর্ক পুনঃস্থাপন করবে ইসরায়েল-তুরস্ক

রিপোর্টারের নাম
  • সময় : বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট, ২০২২
  • ২০ দেখেছেন

প্রসঙ্গ ডেস্কঃ ভূমধ্যসাগরীয় দেশগুলোর মধ্যে কয়েক বছরের উত্তেজনাপূর্ণ সম্পর্কের পর ইসরায়েল ও তুরস্ক তাদের পূর্ণমাত্রার কূটনৈতিক সম্পর্ক পুনরায় চালু করার ঘোষণা দিয়েছে। স্থানীয় সময় বুধবার দেশ দুটি এ ঘোষণা দিয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী ইয়ার ল্যাপিড এই কূটনৈতিক অগ্রগতিকে ‘আঞ্চলিক স্থিতিশীলতার জন্য এবং ইসরায়েলের নাগরিকদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক খবর’ হিসেবে স্বাগত জানিয়েছেন। ল্যাপিডের কার্যালয় বলেছে, কূটনৈতিক উন্নয়নের ফলে দুই দেশের রাষ্ট্রদূত ও কনসাল জেনারেলদের আবারও নিয়োগ করা হবে।

এএফপি জানিয়েছে, দুই দেশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কয়েক মাসের চেষ্টার পর কূটনৈতিক সম্পর্ক পুনঃস্থাপনের এ ঘোষণা এল।  তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগলু বলেছেন, ‘দুই দেশের রাষ্ট্রদূতদের প্রত্যাবর্তন দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের উন্নতির জন্য গুরুত্বপূর্ণ। তবে তুরস্ক এখনো ফিলিস্তিনিদের অধিকার রক্ষার প্রশ্নে অঙ্গীকারবদ্ধ।’

গত ১৫ বছরের মধ্যে প্রথম ইসরায়েল সফরকারী তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে মে মাসে ইসরায়েল সফর করেছেন কাভুসোগলু। সেই সফরে তিনি অধিকৃত পশ্চিম তীরে ফিলিস্তিনি নেতৃবৃন্দের সঙ্গেও দেখা করেছিলেন।

দুই মাস আগে ইসরায়েলের প্রেসিডেন্ট আইজ্যাক হারজোগ তুরস্ক সফর করেছিলেন। তখন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান তাঁদের বৈঠককে ‘ইসরায়েল-তুরস্ক সম্পর্কের একটি টার্নিং পয়েন্ট’ বলে উল্লেখ করেছিলেন।

গাজায় ইসরায়েলি সামরিক অভিযানের পর ২০০৮ সালের দিকে ইসরায়েল ও তুরস্কের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের টানাপোড়েন শুরু হয়। এরপর ২০১০ সালে তুরস্কের মাভি মারমারা জাহাজে ইসরায়েলি হামলায় ১০ জন বেসামরিক মানুষের মৃত্যু হলে দুই দেশে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থবির হয়ে পড়ে। এরপর ২০১৮ সালে গাজা সীমান্তে বিক্ষোভরত ৬০ ফিলিস্তিনিকে ইসরায়েলি বাহিনী গুলি করে হত্যা করলে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানায় আংকারা। পরে দুই দেশ পরস্পরের রাষ্ট্রদূতদের বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়। এর চার বছর পর দুই দেশ আবার রাষ্ট্রদূত নিয়োগ করতে যাচ্ছে।

সূত্রঃ আজকের পত্রিকা

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার.....

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো খবর.....