মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৬:২৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শারদীয় দূর্গাপূজার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ছাত্রলীগের গণযোগাযোগ ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক তূর্য চারঘাটে নিজ গায়ে আগুন লাগিয়ে বৃদ্ধার আত্মহত্যা রাজশাহীতে চলন্ত বাসে ঢুকে গেল বিদ্যুতের খুঁটি নগরায়নের নয়া মহামারি ‘শব্দদূষণ’ রোধের দাবি তরুণদের আরইউজে সম্পাদকের ওপর হামলায় জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার জেলা শাখার নিন্দা বানেশ্বরে নাদের আলী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ও সভাপতির হাতাহাতি ওয়ালটনের কল সেন্টারে চাকরির সুযোগ রাজশাহীর শ্রেষ্ঠ ইউএনও দুর্গাপুরের সোহেল রানা পুঠিয়া রিপোর্টার্স ইউনিটির কমিটি গঠন: সভাপতি আরিফ, সম্পাদক রুবেল তানোরে রংতুলির কাজ শেষ, থানে তোলার অপেক্ষায় প্রতিমা 

রাজশাহীতে মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বাবাকে পিটিয়ে জখম

রিপোর্টারের নাম
  • সময় : বুধবার, ১৭ আগস্ট, ২০২২
  • ৪৬ দেখেছেন
নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীতে মেয়েকে উত্তপ্ত করার প্রতিবাদ করতে গিয়ে বাবাকে পিটিয়ে জখম করেছে বখাটেরা।এ ঘটনায় ৫ দিন অতিবাহিত হলেও বেশ কয়েকটি থানায় গেলেও ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে নেওয়া হয়নি মামলা। বুধবার (১৭ আগস্ট) দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়ন কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা। সংবাদ সম্মেলনে মাধব শাহা বলেন, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় রেলওয়ে স্টেশনে মেয়েকে উত্যক্তের প্রতিবাদ করলে স্থানীয় কয়েকজন যুবক মিলে তাকে ছুরিকাঘাত করেন।
এ ঘটনায় অভিযুক্ত রুহুল আমিন সরকার, ইরফান খান মেরাজ, রবিন, বেনজির ফরহাদ, আখের ও মামুন স্থানীয় ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত বলে জানা যায়। ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়, গত ১২ই আগস্ট শুক্রবার সকালে প্রাইভেটে যাওয়ার সময় কলেজ শিক্ষার্থী কুমারি বর্ষা রাণি শাহাকে বিভিন্নভাবে উত্যক্ত করে ওই উত্যক্তকারীরা। সন্ধ্যায় তার বাবা শ্রী নীল মাধব শাহা এর প্রতিবাদ করতে আসলে উল্টো তার কাছে চাঁদা দাবি করেন তারা। বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে তাকে ছুরিকাঘাত করে তারা পালিয়ে যায়। পরে ভুক্তভোগীর বাবা নগরীর মতিহার থানায় মামলা করতে গেলে তারা বলেন জিআরপি থানায় যেতে। আর জিআরপি থানায় গেলে তারা তাকে মেহেরচণ্ডি থানায় যেতে বলেন। থানা পুলিশ ঘুরে কোনো সুরাহা না পেয়ে ন্যায়বিচারের জন্য প্রধানমন্ত্রী সহযোগিতা কামনা করেন। এই বিষয়ে অভিযুক্ত রুহুল আমিন প্রিন্স বলেন, মারামারির ঘটনা সত্য। তবে ইভটিজিং এর কোন ঘটনা ছিল না।
নীল মাধব সাহা শিবির নেতাদের আশ্রয় দেয়। সে বিষয়ে বাদানুবাদ থেকেই সামান্য হাতাহাতির ঘটনা ঘটে৷ মামলা না নেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে চন্দিমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইমরান হোসেন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় রেল স্টেশন বাজার এলাকা আমাদের থানার আওতার বাইরে। এটা মতিহার থানার ভিতরে পড়েছে৷ আর রাজশাহী রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গোপাল কর্মকার বলছেন, ঘটনাটি মতিহার থানার অন্তর্ভুক্ত এলাকায় ঘটেছে। ফলে মতিহার থানায় অভিযোগ করতে হবে। এ বিষয়ে মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ার আলী তুহিন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি কিন্তু মামলা আকারে লিপিবদ্ধ করা হয়নি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার.....

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো খবর.....